ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীকে অপহরণ করে প্রতিশোধ নিতে চেয়েছিলেন সাদ্দাম হোসেন

ইরাকের পারমাণবিক চু্ল্লীতে ইসরায়েলের হামলার প্রতিশোধস্বরূপ ইসরায়েলের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মেনাচেম বেগিনকে অপহরণ করার পরিকল্পনা করেছিলেন ইরাকের সাবেক স্বৈরশাসক সাদ্দাম হোসেন।

স্পর্শকাতর এই তথ্যটি ফাঁস করেছেন তৎকালীন সাদ্দাম সরকারের অ্যাটর্নি বাদি আরেফ। আল কুদস আল অ্যারাবি নামের আরবি ভার্সনের একটি পত্রিকা এ তথ্য সংগ্রহ করেছে। পত্রিকাটি শিগগির এ ব্যাপারে বিস্তারিত প্রকাশ করবে বলে জানিয়েছে।

বাদি আরেফের বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়েছে, তিনি (আরেফ) ইরাকের তৎকালীন গোয়েন্দাপ্রধানের কাছ থেকে ওই পরিকল্পনার কথা শুনেছিলেন। পরিকল্পনা অনুযায়ী মেনাচেম বেগিনকে অপহরণের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল ফিলিস্তিনের একটি গ্রুপকে। তারা বেগিনকে অপহরণের পর বাগদাদে (ইরাকের রাজধানী) পৌঁছে দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরবর্তীতে নাম না জানা এক পশ্চিমা নেতার অনুরোধে পরিকল্পনাটি প্রত্যাখ্যান করা হয়।

প্রসঙ্গত, ১৯৮১ সালের ৭ জুন ইসরায়েলের যুদ্ধবিমান ইরাকের নির্মাণাধীন ওসিরাক পারমাণবিক চুল্লীতে হামলা চালায়। তেলআবিবের (ইসরায়েলের রাজধানী) ওই অপারেশনের নাম ছিল অপারেশন অপেরা কিংবা অপারেশন ব্যাবিলন। এতে প্রকল্পটি সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস হয়ে যায়।

তখন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেগিন ওই হামলার পক্ষ অবলম্বন করে বলেন, ‘আমরা কি হাত-পা গুটিয়ে বসে আছি যে সেখানে পারমাণবিক বোমা তৈরি হলেও তা জানব না? এ সময় সাদ্দাম হোসেনকে ক্ষমতান্ধ, ধূর্ত, অপ্রকৃতিস্থ প্রভৃতি বলে মন্তব্য করেন বেগিন। নিজের সাম্রাজ্য বাড়াতে সাদ্দাম হোসেন যে কোনো ধরনের ঝুঁকি ও কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে প্রস্তুত ছিলেন বলেও উল্লেখ করেন বেগিন।
সূত্র :টাইমস অব ইন্ডিয়া

You Might Also Like