আমেরিকার আদালতে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে সমন জারি!

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে আমেরিকার একটি আদালত সমন জারি করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা যখন নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক করতে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন তখন এ সমন জারির খবর এল। বৃহস্পতিবার  নিউইয়র্কের সাউদারন ডিসট্রিক্ট ফেডারেল আদালত এই সমন জারি করেছে।

মার্কিন  জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের মুখপাত্র কেইটলিন হেডেন বলেছেন,  ‘ভারতের সঙ্গে এক সফল দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের দিকে প্রেসিডেন্ট ওবামা তাকিয়ে রয়েছেন।’  মোদি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে বৃহস্পতিবার নিউ ইয়র্কের উদ্দেশ্যে ভারত থেকে রওয়ানা হয়ে যান।

যুক্তরাষ্ট্র সফরে গেলে নরেন্দ্র মোদিকে আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যাপক সম্বর্ধনা  দেয়ার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে ওয়াশিংটন।  এ সফরে জাতিসংঘে বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রপ্রধানদের সঙ্গেও বৈঠক করবেন মোদি।

কিন্তু তার আগেই মার্কিন একটি আদালতে মোদির বিরুদ্ধে জারি করা হল সমন। তার বিরুদ্ধে  মুখ্যমন্ত্রী থাকার সময় গুজরাট দাঙ্গা  নিয়ে অভিযোগ আনা হয়েছে।  জানা গেছে, ভারতের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে কঠোর  বিরোধিতা করা হবে।

২৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার এই সংক্রান্ত একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে ‘ইন্ডিয়া আমেরিকা টুডে’ নামে একটি সংবাদ মাধ্যমে। আজ (শুক্রবার) ভারতের বেসরকারি হিন্দি সংবাদ মাধ্যম ‘আজতিক’সহ অন্যান্য সংবাদেও এই বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

‘ইন্ডিয়া আমেরিকা টুডে’তে বলা হয়েছে, ‘আমেরিকান জাস্টিস সেন্টার’ (এজেসি) নামে একটি অলাভজনক মানবাধিকার সংস্থার পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে আদালতে অভিযোগ জানানো হয়। এটিসিএ  বা (ALIEN TORT  CLAIMS ACT) এবং  টিভিপিএ বা (TORTURE VICTIM PROTECTION ACT)  অনুযায়ী এই অভিযোগ করা হয়েছে।’

উল্লেখ্য, জাতিসংঘে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক হবে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। এছাড়া, শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকসে এবং নেপালের প্রধানমন্ত্রী সুশীল কৈরালার সঙ্গেও নরেন্দ্র মোদির বৈঠক হবে বলে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইয়্যেদ আকবর উদ্দিন জানিয়েছেন।

আমেরিকা সফরে ভারতের পক্ষ থেকে বিনিয়োগ ও প্রযুক্তিগত সাহায্য নিয়ে আসাকে অন্যতম লক্ষ্য  হিসেবে রাখা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বৈঠক করবেন বোয়িং ও ব্ল্যাকরক-এর চেয়ারম্যান, গোল্ডম্যান সাচ, আইবিএম, কেকেআর এবং জিই-র প্রেসিডেন্ট ও সিইও-এর সঙ্গে। বৈঠক হবে গুগল, সিটি গ্রুপ,মাস্টার কার্ড, পেপসিকো। হসপেরা’সহ  আরো কয়েকটি শিল্প সংস্থার উচ্চপদস্থ অফিসারদের সঙ্গেও।

ভারতের পররাষ্ট্র দফতর সূত্রে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রীর আমেরিকা সফরের থিম হলো- বানিজ্য ও বিনিয়োগ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, প্রতিরক্ষা এবং নৌসুরক্ষা। এছাড়া, বাজেটে প্রস্তাবিত ১০০টি স্মার্ট সিটিকে আমেরিকার সামনে তুলে ধরা। ২৭ সেপ্টেম্বর মোদি জাতিসংঘের সাধারণ সভায় ভাষণ দেবেন।  প্রবাসী ভারতীয়দের সামনে মোদি ভাষণ দেবেন আমেরিকার টাইমস স্কোয়ারে।

You Might Also Like