জাতিসংঘের সামনে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগদানের প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র শাখা বিএনপি। স্থানীয় সময় শুক্রবার বিকেলে বিএনপি নেতাকর্মিরা বিক্ষোভ সমাবেশ করে শেখ হাসিনাকে অবাঞ্চিত ঘোষনা করেছে। খবর বার্তা সংস্থা বাংলা প্রেস’র।
বিক্ষোভ সমাবেশে বিএনপি নেতারা বলেন, গত ৫ জানুয়ারি অগণতান্ত্রিক ও প্রহসনের নির্বাচনে নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রীর দাবিদার শেখ হাসিনাকে  জাতিসংঘে আসতে দেয়া হবে না। যুক্তরাষ্ট্রের যেখানেই হাসিনা সেখানেই প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে। নিজের মান সম্মান বজায় রাখতে তিনি যদি জাতিসংঘের অধিবেশন বাতিল করে ফিরে যায় তাহলে তাঁর জন্য মঙ্গলজনক হবে। অন্যথায় যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নেতা-কর্মিরা তাঁকে প্রতিরোধ করবে।
বিএনপির চেয়ারপার্সনের বিশেষ উপদেষ্টা ও বৈদেশিক দূত ও যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ডা.মজিবুর রহমান এবং জাহিদ এফ সরদার সাদী’র নেতৃত্বে ও সাবেক ছাত্রনেতা ও যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নেতা আব্দুস সবুরের পরিচালনায় উক্ত বিক্ষোভ সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বিএনপির চেয়ারপার্সনের বিশেষ উপদেষ্টা ও বৈদেশিক দূত জাহিদ এফ সরদার সাদী, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রফেসর দেলোয়ার হোসেন,সাবেক সহ-সভাপতি শামসুল ইসলাম মজনু ও সাবেক সহ-সভাপতি ইলিয়াস আহমেদ মাস্টার প্রমুখ। সমাবেশ উপস্থিত হতে না পেরে সমাবেশকে সম্মতি ও একাত্বতা প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শরাফত হোসেন বাবু ও যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সম্পাদক সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু।
অবৈধ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চলতি অধিবেশন থেকে বাদ দেয়ার বিষয়ে জাতিসংঘের মহাসচিবের বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে বলে উল্লখ করে বিএনপির চেয়ারপার্সনের বিশেষ উপদেষ্টা ও বৈদেশিক দূত ও যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ডা.মজিবুর রহমান তার বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের বর্তমান সরকার সম্পুর্ণ অগণতান্ত্রিক ও অনির্বাচিত। তাই এই সরকার প্রধানকে যেন কোন ভাবেই জাতিসংঘের অধিবেশনে বক্তব্য দেয়ার সুগোগ দেয়া না হয়। বর্তমান সরকার দেশে সাধারন মানুষসহ বিরোধীদলীয় রাজনৈতিক নেতা কর্মিদের নানা ধরনের অত্যাচারসহ জুলুম নির্যাতন চালাচ্ছে। তাই এই জালিম সরকারের প্রধানমন্ত্রীর যুক্তরাষ্ট্রে আগমনকালে বিএনপি সর্বপ্রকারের প্রতিরোধ গড়ে তুলবে।
বিএনপির চেয়ারপার্সনের অপর বিশেষ উপদেষ্টা ও বৈদেশিক দূত জাহিদ এফ সরদার সাদী বলেন, যেখানে ৩০০ আসেনের মধ্যে ১৫৩টি আসনে বিনা প্র্তিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়ে সরকার গঠন করা হয়। সেই সরকারের প্রধানমন্ত্রী জতিসংঘে ভাষন দেয়া একটা লজ্জাজনক ব্যাপার। এতে করে বাংলাদেশ ও বাংলাদেশিদের জন্য হবে চরম অমর্যাদা। তাই শেখ হাসিনার জাতিসংঘের অধিবেশনের যোগদানের পুর্বেই যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি কঠিন আন্দোলনসহ সকল ধরনের প্রতিরোধ গড়ে তুলবে।

You Might Also Like