সমালোচনার মুখে হেমা মালিনী!

সাবেক বলিউডি নায়িকা ভারতের সংসদ সদস্য হেমা মালিনী বাংলা ও বিহারের বিধবাদের উত্তরপ্রদেশের পবিত্র শহর বৃন্দাবনে যেতে মানা করে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন।

এছাড়া, ‘বৃন্দাবনের বিধবাদের প্রত্যেকেরই ব্যাংকে জমানো টাকা, ভালো আয়-রোজগার, সুন্দর বিছানাপত্র থাকা সত্তে¡ও শুধুমাত্র অভ্যাসবশতই তারা ভিক্ষা করেন’ এ মন্তব্য করেও হেমা মালিনী ব্যাপক বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন।’

বিজেপি দলীয় এমপি ৬৫ বছর বয়সী সাবেক এই বলিউডি নায়িকা সোমবার নিজ নির্বাচনী এলাকা মথুরা সফরের সময় এসব মন্তব্য করেন। বৃন্দাবন মথুরা জেলারই একটি শহর। ধর্মীয় দিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ ভারতের এ ঐতিহাসিক শহরে হাজার হাজার বিধবা ও নি:স্ব নারী বসবাস করেন।

হেমা মালিনী বলেন, ‘বৃন্দাবনে প্রায় ৪০ হাজার বিধবার বসবাস। শহরটিতে আর কোনও খালি জায়গা নেই। অথচ এরপরও বাংলা অঞ্চল থেকে এখনও প্রচুর সংখ্যক বিধবা নারী এখানে আসছেন। এটা ঠিক নয়। বাংলার বিধবারা বাংলাতেই থাকেননা কেন? সেখানেওতো অনেকগুলো সুন্দর মন্দির রয়েছে। আর বিহারের বিধবাদের ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য।’

হেমা মালিনী আরও বলেন, বিষয়টি নিয়ে তিনি পশ্চিমবঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সঙ্গেও আলোচনা করবেন।

মথুরার একটি আশ্রম পরিদর্শন শেষে হেমা মালিনী এই মন্তব্য করেন। তিনি যে আশ্রমটি পরিদর্শনে গিয়েছিলেন তার অবস্থা খুবই দুর্দশাগ্রস্ত ছিল।
প্রসঙ্গত, হেমা মালিনী গত মে মাসে অনুষ্ঠিত ভারতের লোকসভা নির্বাচনে মথুরা থেকে ব্যাপক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

কিন্তু নিজ নির্বাচনী এলাকায় লম্বা সময় ধরে অনুপস্থিত থাকায় তার ‘নিখোঁজ’ হওয়ার সংবাদ সম্বলিত অসংখ্য পোস্টার ছাপিয়ে ছড়িয়ে দেওয়া হয়।

এছাড়া এই প্রথমবারের মতো নির্বাচিত হওয়া লোকসভার এই সংসদ সদস্য সংসদে খুবই কম উপস্থিতির জন্যও ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন।

You Might Also Like