দীপিকা- সোনম আবার মুখোমুখি

দীপিকা পাড়ুকোন আর সোনম কাপুর বলিউডে অভিষিক্ত হন ২০০৭ সালের নভেম্বরে। একই দিনে মুক্তি পায় তাদের প্রথম ছবি। দুই তারকার মধ্যে তাই প্রতিদ্বন্দ্বিতার আবহটা শুরু থেকেই।

মাঝখানে অবশ্য ফিকে হয়ে এসেছিল ব্যাপারটা। সম্প্রতি আবার জমাট হয়ে উঠেছে। কারণ আবারো একই সঙ্গে মুক্তি পেতে চলেছে তাদের দুজনার ছবি। তবে এবার একই দিনে নয়। আগামী ১২ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাবে দীপিকার নতুন ছবি ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’ এবং এর এক সপ্তাহ পর (১৯ সেপ্টেম্বর) আসবে সোনমের ‘খুবসুরত’। দুজনই উঠেপড়ে লেগেছেন নিজের ছবির সাফল্য আনতে। ভক্তদেরও আগ্রহের কমতি নেই- কে কাকে ছাড়িয়ে যাবেন তা দেখতে।

ব্যবসার দিক থেকে শুরুতেই সোনমকে ছাড়িয়ে গেছেন দীপিকা। ক্যারিয়ারের প্রথম ছবি ‘সাওয়ারিয়া’তে সোনমের নায়ক ছিলেন রণবীর কাপুর। রণবীরের ক্যারিয়ারেও সেটাই প্রথম ছবি। অন্যদিকে দীপিকা বলিউডে প্রথম ছবিতেই নায়ক হিসেবে পান শাহরুখ খানকে, ‘ওম শান্তি ওম’ ছবিতে। বলাবাহুল্য, এই দুই ছবির সাফল্যের ফারাকটা ব্যাপক।

তারপর সাত বছরে দীপিকার ক্যারিয়ারেও যুক্ত হয়েছে বেশ কয়েকটি ‘ফ্লপ’। কিন্তু গত কয়েক বছরে মুক্তি পাওয়া ‘রেস টু’, ‘ইয়ে যওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’, ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’, ‘রাম-লীলা’র মতো ছবির দুর্দান্ত সাফল্যে ম্লান হয়ে গেছে সেসব ‘কালিমা’। দীপিকা এখন বলিউডের এক নম্বর নায়িকার দৌড়ে।

অন্যদিকে সোনম কাপুর গত কয়েক বছরে একটু একটু করে সাফল্যের স্বাদ পেতে শুরু করেছেন বটে, তবে ‘ফ্লপ ছবির হিট নায়িকা’ তকমাটা এখনও ঝেড়ে ফেলতে পারেননি। ‘রাঞ্ঝানা’ কিংবা ‘ভাগ মিলখা ভাগ’ ছাড়া তার ক্যারিয়ারে নেই ব্যবসাসফল উল্লেখযোগ্য কোনো সিনেমা। বলিউডের ডাকসাইটে অভিনেতা অনিল কাপুরের মেয়ে হওয়ার কারণে শুরু থেকেই আলোচনার কেন্দ্রে ছিলেন সোনম। পেয়েছেন বিগ বাজেটের সিনেমায় কাজের সুযোগও। তবু হাওয়া লাগেনি পালে।

এখন অবশ্য পরিস্থিতি একটু ভিন্ন। দীপিকা মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’ প্রচলিত বাণিজ্যিক ধারার ছবি নয়। অথচ দীপিকার দাপট ওই ধারার ছবিতেই বেশি। ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’তে তিনি অভিনয় করেছেন তরুণী বিধবা হিসেবে- বাণিজ্যিক সিনেমার গ্ল্যামারাস নায়িকার ক্ষেত্রে বিষয়টা ঝুঁকিপূর্ণ ভীষণ।

সোনমের ‘খুবসুরত’ নির্মিত হয়েছে ১৯৮০ সালে মুক্তি পাওয়া একই নামের একটি ছবির বর্তমান সময়ের সংস্করণ হিসেবে। অশোক কুমার ও রেখা অভিনীত সেই ছবিটিকে হিন্দি ভাষার অন্যতম ধ্রুপদী ছবি হিসেবেই করা হয় বিবেচনা। ছবিটির মুগ্ধতায় এখনো জড়িয়ে আছেন অনেকে। এটা নিসন্দেহে সোনমের জন্য একটি সুখবর।

দীপিকা- সোনম দুজনেই নিজেদের ছবির প্রচারণায় মনপ্রাণ সপে দিয়েছেন। সাম্প্রতিক সময়ে নিজের কোনো ছবির প্রচারণায় তাদের এতো উদ্বেল দেখা যায়নি। তাহলে কি সত্যিই তারা নিজেদের মধ্যে প্রতিযোগিতা অনুভব করছেন? এ ব্যাপারে মুখ খুলছেন না তারা কেউ। তবে সাফল্যের হাসি শেষ পর্যন্ত কার ঠোঁটে ফুটবে- তা দেখতে মুখিয়ে আছেন সবাই। সূত্র: এনডিটিভি, ইন্ডিয়া টাইমস ও আইএএনএস

You Might Also Like