‘মুহিত ক্ষমতার অপব্যবহার করে টাকা চেয়েছেন’

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ক্ষমতার অপব্যবহার করে জনতা ব্যাংকের কাছে টাকা দাবি করেছিলেন বলে অভিযোগ করেছেন ব্যাংকটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত।

আজ সোমবার ঢাকার দক্ষিণ বাসাব, বালুর মাঠ এলাকায় জনতা ব্যাংক-বারডেম ইব্রাহিম নার্সিং কলেজ ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে বারকাত এ অভিযোগ করেন।

সুনামগঞ্জের হাওরে আয়োজিত নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার জন্য মন্ত্রী এই টাকা চেয়ে চিঠি দিয়েছিলেন। তবে আওয়ামীপন্থি অর্থনীতিবিদ বারকাত সে টাকা দেননি। আর টাকা না দেওয়াতে জনতা ব্যাংকের সিএসআর কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

তিনি বলেন, আজই আনুষ্ঠানিকভাবে জনতা ব্যাংকে আমার চেয়ারম্যানের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। আশা করছি, আমি চলে যাওয়ার পর এক সপ্তাহের মধ্যে ব্যাংকের ওপর থেকে এই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হবে।

সিএসআর কার্যক্রমে অনিয়ম-দুর্নীতি সম্পর্কে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এই অধ্যাপক বলেন, সিএসআর আওতায় প্রাপ্ত সুবিধাভোগীদের সবার মোবাইল ফোন নং, ঠিকানা সাংবাদিকদের সামনে প্রকাশ করা হবে। কেউ যদি বলেন টাকা পাইনি, তাহলে আমি ব্যবস্থা নেব।

এর আগে বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ডা. একে আজাদ খানের সঙ্গে অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত যৌথভাবে নার্সিং ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন।

You Might Also Like