লক্ষ্মীপুরে র‌্যাবের ভুয়া ২ ‘মেজর’ আটক

লক্ষ্মীপুরে শাহাদাত হোসেন ও মতিউর রহমান মিরাজ নামে র‌্যাবের মেজর পরিচয়দানকারী দুই ভুয়া মেজরকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বাঞ্চানগর এলাকায় সদর থানায় গ্রেফতারকৃত চুরির মামলার আসামি হাসানকে ছাড়িয়ে নেওয়ার আশ্বাসে ২০ হাজার টাকা চাঁদাবাজি করতে গিয়ে সোমবার দুপুরে তারা আটক হন।

আটক মতিউর রহমান মিরাজ নোয়াখালী জেলার হাতিয়া উপজেলার মোতালেব মিয়ার ছেলে এবং শাহাদাত হোসেন লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার বাঞ্চানগর গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ জানায়, লক্ষ্মীপুর পৌরসভার আলিয়া মাদরাসা এলাকায় মীম মোটর্সে চুরির ঘটনায় হাসান নামে একজনকে রোববার রাতে গ্রেফতার করে সদর থানা পুলিশ। তাকে ছাড়িয়ে নেওয়ার জন্য র‌্যাবের মেজর আবু সায়েদের পরিচয় দিয়ে হাসানের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে শাহাদাত ও মিরাজ। পরে চুরির মামলার আসামি হাসানকে ছাড়িয়ে দেওয়ার কথা বলে তার পরিবারের কাছে ২০ হাজার টাকা দাবি করেন তারা। ওই পরিবারের সামনে শাহাদাত ও মিরাজ নিজেদেরকে র‌্যাবের মেজর আবু সায়েদের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচয় দিয়ে মোবাইল ফোনে লক্ষ্মীপুর পুলিশ সুপার শাহ মিজান সাফিউর রহমানের সঙ্গে কথা বলেন।

পুলিশ সুপার র‌্যাবের বিভিন্ন দফতরে তাদের বিরুদ্ধে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন তারা ভুয়া। পরে ডিবি পুলিশ পাঠিয়ে ভুয়া মেজরের পরিচয় দেওয়া শাহাদাত ও মিরাজকে আটক করা হয়।

পুলিশ সুপার শাহ মিজান সাফিউর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, প্রতারণার অভিযোগে তাদের আটক করা হয়েছে।

রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তাদের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিলো।

You Might Also Like