কানসাসের উচিতায় ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামিলীর জমজমাট ঈদ পুনর্মিলনী

যুক্তরাষ্ট্রের কানসাস অঙ্গরাজ্যের উচিতায় ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামিলীর উদ্যোগে গত শনিবার জমজমাট এক ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। কানসাস প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য মিলন মেলায় পরিনত হয়েছিল এ অনুষ্ঠান। খবর বার্তা সংস্থা বাংলা প্রেস’র।
উচিতার এর বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রবিউল করিম বেলালের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত উক্ত ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে ছিল সংক্ষিপ্ত আলোচনা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। উচিতাসহ পার্শ্ববর্তী এলাকার প্রচুর সংখ্যক বাংলাদেশি ঈদের আনন্দ মেলায় এসে আড্ডা আর আনন্দে মেতে উঠেন। অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র কোরান তেলাওয়াত করেন শাওন সাঈদ। এরপর মিস আমেরিকা জুনিয়র নোরা আলীর ভায়োলিনে বাজানো বাংলাদেশ ও আমেরিকার জাতীয় সঙ্গীত সুর ভিডিওচিত্রে দেখানোর সময় উপস্থিত সকলেই দাঁড়িয়ে সম্মান প্রদর্শন করেন। অনুষ্ঠানের মুল আকর্ষন ছিল উচিতা তরুণ প্রজন্মের পরিবেশনায় দৃষ্টিনন্দিত ও চমকপ্রদ ঈদের ফ্যাশন শো। উপস্থিত দর্শকরা প্রাণভরে উপভোগের পাশাপাশি মুহুর্মুহু করতালি দিয়ে তাদের উৎসাহিত করে তোলেন। ফ্যাশন শো পরিচালনা করেন উচিতা তরুণ প্রজন্মের মুবাশ্বির করিম আকাশ। ফ্যাশন শোতে অংশ নেন মেহরাব হাসান, হাসানুল শোরন খোকন, হামিদুল শোভিক খোকন, তাবিন আজাদ, তানজিন আজাদ, শামস শার্ফ্রাজ, সাজ্জাদ শার্ফ্রাজ,জিসান খান,দ্বীপ হোসেন, মুবাশ্বির করি্‌ম, মাহবীন আরিয়া আহসান, আমীরা গফুর, আকলিমা আহসান, নওরিন করিম,মাহরীন আহসান, ফিয়ানা আনিথ আহমেদ,ইফ্রিদা টোরি,জারিন শোইটি,দৃষ্টি হোসেন,নিব্রাস করিম, সাঈদা নাবিলা ও ফারজানা জেনিথ আহমেদ। ফ্যাশন শো’র পরেই  শুরু হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে সঙ্গীত পরিবেশন করেন উত্তর আমেরিকার জনপ্রিয় লোকগান ও সমকালীন সঙ্গীতশিল্পী কৌশলী ইমা। তিনি মৌলিক ও সমকালীন গান দিয়ে তার পরিবেশনা শুরু করেন। প্রায় ৬/৭ টি গান পরিবেশন করে দর্শকদের বেশ কিছুক্ষন আনন্দ দেন। ফিডব্যাক ব্যান্ডের জনপ্রিয় শিল্পী রোমেল খান ও গাইডেন হকিন্স ঘন্টাব্যাপী ব্যান্ডের গান পরিবেশনের মধ্য দিয়ে দর্শকদের নাচিয়ে তোলেন। এছাড়া স্থানীয় শিল্পী সুরমা, লিপি দাস গুপ্ত ও কানেকটিকাট থেকে আগত শিশুশিল্পী সুমাইয়াহ সুখ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে জোয়ান বায়েজে-এর বিখ্যাত গান ‘বাংলাদেশ বাংলাদেশ’ ও অস্কার বিজয়ী সিনেমা ফ্রোজেন জনপ্রিয় গান পরিবেশন করে সকলকে মুগ্ধ করে তোলেন। পিয়ানো বাজিয়ে শোনান ফিয়ানা আনিথ আহমেদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সুমন ও ফারহানা ন্যানিথ আহমেদ।

_BPP wichita 004
ঈদের আনন্দকে স্বরণীয় করে রাখার জন্য স্থানীয় কয়েকজন ব্যবসায়ী বন্ধুর প্রচেষ্টায় এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এরা হলেন সঞ্জীব মিত্র,সাইফুল অ্যাপোলো, আমজাদ চৌধুরী, রেজাউল করিম টিপু, মিজানুর রহমান ও বাচ্চু ইসলাম প্রমুখ। এছাড়াও অনুষ্ঠানে সহযো্গিতা করেন মিড কন্টিনেন্ট বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কানসাস ( এমসিবিএকেএস) এর সভাপতি ডা.আবু মাসুদ। অনুষ্ঠানের মাঝে এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ডা. মাসুদ উপস্থিত দর্শক শ্রোতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, উচিতায় আমাদের এই ছোট কমিউনিটির আজকের এই ঈদের অনুষ্ঠানে যারা উপস্থিত হয়ে সহযোগিতা প্রদান করেছেন তাদের কাছে আমরা চির কৃতজ্ঞ। আগামীতে একইভাবে আপনাদের সৌহার্দ্যপুর্ণ সহযোগিতা আমাদের চলার পথে আরও অনেকটা সহায়ক হবে। তিনি উচিতা প্রবাসী বাংলাদেশিদের আগামী সপ্তাহে অনুষ্ঠিতব্য মিড কন্টিনেন্ট বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কানসাস ( এমসিবিএকেএস) এর বার্ষিক বনভোজনে উপস্থিত থাকার জন্য সকলকে আমন্ত্রণ জানান। উচিতার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, সমাজসেবী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রবিউল করিম বেলাল তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, নতুন প্রজন্মের ছেলে-মেয়েদেরকে আগামী দিনে আমাদের দেশীয় সংস্কৃতির সাথে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে আমাদের এবারের ঈদ অনুষ্ঠান। এ প্রজন্মের বিশেষ করে আমেরিকায় বেড়ে উঠা ছেলে-মেয়েরা বাংলাদেশের কৃষ্টি কালচার আগামী দিনগুলোতে ধরে রাখতে পারে সেজন্য আমাদের এই প্রয়াস। পরবর্তী্তে উচিতায় যেসব অনুষ্ঠানাদি অনুষ্ঠিত হবে সেসব অনুষ্ঠানে এ প্রজন্মের ছেলে-মেয়েদের সম্পৃক্ততা করা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি মঞ্চে ডেকে সকল তরুন-তরুণীদের সাথে দর্শক-শ্রোতাদের পরিচয় করিয়ে দেন। একই সাথে অনুষ্ঠানের সকল কলা-কুশলীদের হাতে ট্রফি তুলে দেন। ট্রফি হাতে পেয়ে শিল্পীরা অনেকটা খুশি হলেও  শিশুশিল্পী সুমাইয়াহ সুখ খুশিতে আত্মহারা হয়ে বলেন, এটাই তার জীবনের প্রথম ট্রফি। অনুষ্ঠানের মাঝখানে স্থানীয় দেশি কারির সরবরাহকৃত মজারদার খাবার দিয়ে অতিথিদের নৈশ্যভোজের আপ্যায়ন করা হয়।

 

You Might Also Like