কী ছিলো আইনস্টাইনের ‘গড লেটারে’?

আলবার্ট আইনস্টাইনের লেখা একটি চিঠি বিক্রি হলো ৩ মিলিয়ন ডলারে। কী ছিলো এই চিঠিতে?

কথিত এই গড লেটার লেখা হয়েছিলো ১৯৫৪ সালে এবং আশা করা হচ্ছিলো যে নিউইয়র্কে নিলামে এটি হয়তো দেড় মিলিয়ন ডলার পর্যন্ত দামে বিক্রি হতে পারে।

নোবেল বিজয়ী এই বিজ্ঞানী ৭৪ বছর বয়সে তখন দেড় পাতার একটি চিঠি লিখেছিলেন জার্মান দার্শনিক এরিক গুটকাইন্ডের কাছে তার একটি কাজের জবাব হিসেবে।

কিন্তু এটাকেই এখন দেখা হচ্ছে ধর্ম ও বিজ্ঞানের মধ্যকার বিতর্কের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিবৃতি হিসেবে।

কারণ মৃত্যুর মাত্র এক বছর আগে লেখা এই চিঠির মধ্যেই ছিলো ধর্ম ও দর্শন নিয়ে তার দৃষ্টিভঙ্গি।

আর সে কারণেই নিলামে এটি আসলে বিক্রি হয়েছে প্রত্যাশার দ্বিগুণ দামে।

এই চিঠিতে মাতৃভাষা জার্মান ভাষাতেই তিনি ঈশ্বরে বিশ্বাসে বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন।
তিনি বলেছেন, “ঈশ্বর শব্দটি আমার কাছে আর কিছুই না, এটি হলো মানুষের দুর্বলতার একটি বহি:প্রকাশ”।

কোন ব্যাখ্যাই যে তার এ ধারণার পরিবর্তন করতে পারবেনা সেটিও তিনি সেখানে পরিষ্কার করেই লিখে দিয়েছিলেন।

তিনি যে ইহুদি সম্প্রদায় ও তাদের মানসিকতাকে ধারণ করেন সেই ইহুদিদের তিনি অন্য মানুষদের থেকে আলাদা কিছু নয় বলেই তার মতামত দিয়েছেন সেখানে।

আইনস্টাইনের চিঠি নিলামে ওঠা এই প্রথম নয়।

গতবছরই একজন ইটালির একজন রসায়নের ছাত্রের কাছে দেয়া একটি চিঠি নিলামে ছয় হাজার ডলারে বিক্রি হয়েছিলো।

ই ছাত্র আইনস্টাইনের সাথে দেখা করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন।

২০১৭ সালে সুখে বসবাস নিয়ে তার পরামর্শ সম্বলিত একটি নোট প্রায় দেড় মিলিয়ন ডলারে বিক্রি হয়েছিলো জেরুসালেমে।

তবে তার বিখ্যাত থিওরি অফ রিলেটিভিটি নিয়ে লেখা একটি চিঠি বিক্রি হয়েছিলো প্রায় এক লাখ ডলারে। -বিবিসি বাংলা

You Might Also Like