‘সিনেমাটি আমার জীবন সম্পূর্ণ বদলে দিয়েছে’

ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী বিদ্যা বালান। অভিনয় ক্যারিয়ারে অসংখ্য দর্শকপ্রিয় সিনেমা উপহার দিয়েছেন এই অভিনেত্রী। তার অভিনীত অন্যতম জনপ্রিয় সিনেমা ‘দ্য ডার্টি পিকচার’। ২০১১ সালের ২ ডিসেম্বর মুক্তি পায় মিলান লুথারিয়া পরিচালিত এ সিনেমা। মুক্তির পর ব্যবসায়ীকভাবেও সফল হয়েছে এটি।

গতকাল রবিবার (২ ডিসেম্বর) সিনেমাটি মুক্তির সাত বছর পূর্ণ করেছে। এ উপলক্ষে বিদ্যা বালান বলেন, ‘‘সিনেমাটি আমার জীবন সম্পূর্ণ বদলে দিয়েছে। যখনই কেউ জিজ্ঞাসা করে কীভাবে কাজটি করেছিলাম তখন বুঝতে পারি না কী বলব। হয়তো মিলান কাজটি খুব সহজ করে দিয়েছিল। মিলান সবসময় আমার পাশে ছিল আর আমিও চেষ্টা করেছি ‘সিল্ক’ চরিত্রের প্রতি সুবিচার করতে।’’

এই সিনেমার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন বিদ্যা বালান। পরিচালক মিলান লুথারিয়াকে ধন্যবাদ জানিয়ে বিদ্যা বলেন, ‘আমাকে যেন কোনোভাবে বিপর্যস্ত হতে না হয়, এটা মিলানের চিন্তার একটা কারণ ছিল। কিন্তু সেরকম কিছু ঘটেনি। বরং আমায় ও এমন উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছিল যে, নিজেকে পাখি মনে হতো।’

বিদ্যা বালান ২০০৫ সালে ‘পরিণীতা’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হয়। পাশাপাশি সেরা অভিষেক অভিনেত্রী হিসেবে সিনেমাটির জন্য ফিল্মফেয়ার পুরস্কারও পেয়েছিলেন তিনি। বিদ্যা অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমা হলো- ‘লাগে রাহো মুন্না ভাই’ (২০০৬), ‘গুরু’ (২০০৭), ‘ভুল ভুলাইয়া’ (২০০৭), ‘পা’ (২০০৯), ‘ইস্কিয়া’ (২০১০), ‘নো ওয়ান কিলড জেসিকা’ (২০১১), ‘কাহানি’ (২০১২) প্রভৃতি।

You Might Also Like