সৌদির আকাশে ককপিটে বসে ব্রাজিলিয়ান পাইলটের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ

ব্রাজিলের নাগরিক ক্যাপ্টেন আমালো আরব বিশ্বের বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রধান শিরোনামে পরিণত হয়েছেন। সৌদি আরবের আকাশে একটি যাত্রীবাহি বিমান নিয়ে উড়ে যাওয়ার সময় তিনি বিমানের কো-পাইলটকে দিকনির্দেশনারত অবস্থায় ছিলেন, কিন্তু হঠাৎ করেই তিনি কিছুক্ষণের জন্য দিকনির্দেশনা দেয়া বন্ধ করে দিয়ে ককপিটে বসেই ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার কথা ঘোষণা করেন। আকাশে তার ইসলাম ধর্ম গ্রহণের কারণেই তিনি আরব সংবাদ মাধ্যমগুলোর আগ্রহের কেন্দ্র বিন্দুতে পরিণত হয়েছেন।

ব্রাজিলিয়ান পাইলট ক্যাপ্টেন আমালো যে বিমানটি পরিচালনা করছিলেন তার পরিচয় সম্পর্কে এখনো পর্যন্ত তেমন কিছু জানা যায় নি। কিন্তু বিমানটির ককপিটে বসেই তার ইসলাম ধর্ম গ্রহণের(শাহাদা পড়ার) দৃশ্য সংবলিত একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াগুলোতে ভাইরাল হয়ে যায়।

ক্যাপ্টেন আমালো তার সহকর্মীর সাথে বিমানের ককপিটে বসে বিমানটি পরিচালনা করছিলেন এবং বিমান পরিচালনার দিকনির্দেশনায় সাময়িক বিরতি দিয়ে তিনি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন ভিডিওটিতে এমনটিই দেখা যায়।

বার্তা সংস্থা আল বালাদ নিউজ কর্তৃক প্রকাশিত একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে, সৌদি আরবের আকাশে অন্তত ১৮,০০০ ফুট উঁচুতে থাকা বিমানটির পাইলট ক্যাপ্টেন আমালো ইসলাম ধর্মের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কালেমাটি উচ্চারণ করার মাধ্যমে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন।

ক্যাপ্টেন আমালোর ইসলাম ধর্ম গ্রহণের ভিডিওটি ইতোমধ্যে ২০,০০০ বারের অধিক দেখা হয়েছে এবং এটি মধ্য প্রাচ্যের বেশ কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমের প্রধান শিরোনামে রূপান্তরিত হয়েছে।

তবে ঠিক কখন ক্যাপ্টেন আমালো ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন তা জানা যায় নি কিন্তু পাইলট ব্যাখ্যা দিয়ে বলেন, বিমানটি সৌদি আরবের তাবুকে যাওয়ার সময় ঘটনাটি ঘটে।

বিমানটির ককপিটে ক্যাপ্টেন আমালোর পাশে বসা কো-পাইলট বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘আমরা সেখানে ব্রাজিলের পাইলট আমলোর সাথে বসা ছিলাম। তিনি সেসময় ‘শাহাদা’ উচ্চারণ করেন যখন আমরা তালুকা থেকে উড্ডয়ন করেছিলাম।’

এর পরেই ক্যাপ্টেন আমালো প্রার্থনা করে ঘোষণা করেন, আল্লাহ ছাড়া কোনো ইলাহ নেই।

বিমানটি আকাশে থাকা অবস্থায় প্রার্থনার পরে ক্যাপ্টেন আমালোকে এই বাণী উচ্চারণ করতে দেখা যায়, ‘আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, মুহাম্মদ(সাঃ) আল্লাহর প্রেরিত বার্তা বাহক।’

You Might Also Like