শহিদুল আলমের জামিন স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন

আলোকচিত্রী ড. শহিদুল আলমকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলায় হাইকোর্টের দেওয়া জামিন স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করেছে।

রবিবার রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে শহিদুল আলমের জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন করা হয়েছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন অ্যাডভোকেট সুফিয়া খাতুন।

দুপুরে আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতির আদালতে স্থগিত আবেদনটির ওপর শুনানি হতে পারে।

এর আগে ১৫ নভেম্বর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলায় শহিদুল আলমকে জামিন দেন হাইকোর্ট। তার জামিন বিষয়ে রুল যথাযথ ঘোষণা করে বিচারপতি শেখ আবদুল আউয়াল ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তী এ রায় ঘোষণা করেন।

আদালতে শহিদুল আলমের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার সারা হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ফজলুর রহমান খান।

৬ নভেম্বর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলায় শহিদুল আলম হাইকোর্টে পুনরায় জামিন আবেদন করেন। এর আগে ২৯ অক্টোবর শহিদুল আলমের জামিন আবেদন কার্যতালিকা থেকে বাদ দেন বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনের সময় আলজাজিরা টেলিভিশন চ্যানেলে প্রচারিত শহিদুল আলমের সাক্ষাৎকারের ভিডিও ফুটেজ দাখিল করতে বলেন হাইকোর্ট।

৭ অক্টোবর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলায় শহিদুল আলমকে কেন জামিন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। ১৮ অক্টোবর দ্বিতীয়বারের মতো শহিদুল আলম হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন।

৪ সেপ্টেম্বর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলায় আলোকচিত্রী শহিদুল আলমের জামিন আবেদন শুনতে বিব্রতবোধ করেন হাইকোর্টের আরেকটি বেঞ্চ।

১২ আগস্ট তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলায় শহিদুল আলমকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। ৬ আগস্ট রমনা থানায় করা মামলায় শহিদুল আলমের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

You Might Also Like