মুখেই কেবল গণতন্ত্র আর মানবতা

মুখেই গণতন্ত্র ও মানবতার কথা বলে; কর্মে তারা ভয়ংকর রকমের স্বৈরাচারী ও মানবতাহীন। এমন মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
তিনি বলেন, কথায় মনে হয় যেন তাদের মতো ভালো মানুষ; গণতান্ত্রিক, মানবতাবাদী মানুষ আর নেই। অথচ কাজে এই ১০ বছরে ভয়ঙ্কর সমাজ তৈরি করেছে তারা। এ সমাজে সাংবাদিকরাও বিভক্ত হয়ে পড়েছে। এই ডাবল স্টান্ডার্ডটি আমাদের শেষ করতে হবে।
আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, দেশে একটি জাতীয় ঐক্য তৈরি করতে হবে। তা না পারলে ফ্যাসিবাদ থেকে মুক্তি মিলবে না। যদি সবাই ঐক্যবদ্ধ হয় তাহলে মুক্তি সম্ভব। এজন্য সব গণতান্ত্রিক দলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলন করতে হবে।
মির্জা ফখরুল বলেন, নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার ব্যবস্থা চালু করতে হবে। ভোটের আগে সংসদ ভেঙে দিতে হবে। সেনাবাহিনী মোতায়েন করতে হবে এবং ভোটের জন্য লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করতে হবে। একই সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকেও অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে।
সরকারকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আপনারা বসে কথা বলেন। সংকট সমাধান করেন। আমরা বলিনি, আমাদের সব দাবি মেনে নিতে হবে। এটা না করে যদি নির্বাচনে যান, তাহলে জনগণ তা মেনে নেবে না। এবার ২০১৪ সালের মতো নির্বাচন মানুষ হতে দেবে না। কত গুম, খুন করবেন করেন। দেখি কতজনকে জেলে দিতে পারেন।

এ সময়, নির্বাচন কমিশনের সমালোচনায় মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার এমন একটা মেরুদণ্ডহীন নির্বাচন কমিশন তৈরি করেছে; যারা কোন নিয়ম মানে না। যখন ফোনে বলি, তারা বলে সবই ঠিক আছে। কাজের কাজ কিছুই তারা করে না। এদিকে, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী সংসদ নির্বাচন নিয়ে যতই মহাপরিকল্পনা করুক না কেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ছাড়া দেশে কোন নির্বাচন হবে না। আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

আগামী নির্বাচনের সব দলের অংশগ্রহণ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, এটা স্বৈরশাসকের কণ্ঠস্বর। কারণ তারা জনগণকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করে, কারণে অকারণে জ্ঞান দেয়। গতকাল (বুধবার) প্রধানমন্ত্রী সেটাই করেছেন। সাংবাদিক সম্মেলনের তার বক্তব্য হিংসা-প্রতিহিংসায় আকণ্ঠ আপ্লুত।

You Might Also Like