দক্ষিণ কোরিয়ার পর উত্তর কোরিয়াও তাদের মাইক সরিয়ে নিচ্ছে

কোরিয়ার সীমান্তে যে মাইকগুলো দিয়ে বিষেদাগার ছড়ানো হতো সেগুলো সরিয়ে নেবে উত্তর কোরিয়া। সোমবার দক্ষিণ কোরিয়ার কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।
গত শুক্রবার দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায় ইনের সঙ্গে ঐতিহাসিক বৈঠকে বসেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন। ১৯৫০-৫৩ সালের কোরীয় যুদ্ধের পর উনই প্রথম প্রেসিডেন্ট যিনি দক্ষিণ কোরিয়ার মাটিতে পা রাখেন। বৈঠকে কোরীয় উপদ্বীপকে সম্পূর্ণ পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণে সম্মত হয়েছেন কিম জং উন।

দুই কোরিয়ার মধ্যে যখন সামরিক উত্তেজনা বিরাজ করত, তখন সীমান্তে থাকা মাইকগুলো দিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে বিদ্বেষমূলক সংবাদ পরিবেশন করা হতো। দক্ষিণ কোরিয়াও একই রকম মাইক ব্যবহার করত, যা তারা গত শনিবার বন্ধ করে দেয়। শুক্রবারের শীর্ষ সম্মেলনকে সামনে রেখে দুই কোরিয়ার মাইকগুলো বন্ধ রাখা হয়। সম্মেলনের পর মাইকগুলো খুলে ফেলার সিদ্ধান্ত হয়। মঙ্গলবার থেকে এটি কার্যকর হবে বলে দক্ষিণ কোরিয়ার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র চোই হাইউন সু বলেছেন, ‘সামরিক আস্থার ক্ষেত্রে আমরা এটাকে সবচেয়ে সহজ প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে দেখছি। আমরা আশা করছি উত্তর কোরিয়া এটা বাস্তবায়ন করবে।’

You Might Also Like