ইরানকে পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে দেয়া হবে নাঃ ট্রাম্প

ইরানকে পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে দেয়া হবে না। ট্রাম্প এমন সময় এ হাস্যকর বক্তব্য দিলেন যখন ইরান শুরু থেকে বলে এসেছে, পরমাণু অস্ত্র তৈরির কোনো পরিকল্পনা দেশটির নেই। একইসঙ্গে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ ও আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা- আইএইএ’র পক্ষ থেকে বহুবার এ নিশ্চয়তা দেয়া হয়েছে যে, ইরান শান্তিপূর্ণ (বেসামরিক) পরমাণু কর্মসূচি পরিচালনা করছে।

যৌথ সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প আজগুবি অভিযোগ উত্থাপন করে ইরানকে মধ্যপ্রাচ্যের বেশিরভাগ অস্থিতিশীলতার জন্য দায়ী করেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট দাবি করেন, ইরান সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোকে সমর্থন দিচ্ছে।

হোয়াইট হাউজে অনুষ্ঠিত যৌথ সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্পের সঙ্গে সুর মেলান জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেল। তিনি দাবি করেন, ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতা ছিল দেশটিকে পরমাণু অস্ত্র অর্জন থেকে বিরত রাখার প্রথম পদক্ষেপ। মার্কেল ট্রাম্পকে সমর্থন করে বলেন, পরমাণু সমঝোতা পূর্ণাঙ্গ নয় এবং এতে পরিবর্তন আনতে হবে।

জার্মান চ্যান্সেলর আরো বলেন, মধ্যপ্রাচ্যে ইরানের প্রভাব কমিয়ে আনার প্রয়োজনীয়তার ব্যাপারে ওয়াশিংটনের সঙ্গে বার্লিন একমত হয়েছে।
আমেরিকা ও জার্মানীর নেতারা এমন সময় মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিতিশীলতার জন্য ইরানকে দায়ী করলেন যখন এ অঞ্চলে সৌদি-মার্কিন পৃষ্ঠপোষকতায় ছড়িয়ে দেয়া সন্ত্রাসবাদ বিরোধী যুদ্ধে ইরান কেন্দ্রীয় ভূমিকা পালন করছে। ইরাক ও সিরিয়ায় ভয়াবহ অপরাধযজ্ঞ পরিচালনাকারী উগ্র জঙ্গি গোষ্ঠী দায়েশকে দমন করতে দামেস্ক ও বাগদাদের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়েছে তেহরান। আমেরিকার মতো স্বাগতিক দেশের আহ্বান ছাড়াই উড়ে এসে জুড়ে বসেনি ইরান।

You Might Also Like