মাশরাফিকে মিনিমাম ২০-২৫ ওভার বোল করতে হবে

মাশরাফি বিন মুর্তজা টেস্ট খেলার ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন। নিজেকে ফিট রাখতে পারলে বাংলাদেশকে টেস্ট অঙ্গনে আবারও প্রতিনিধিত্ব করতে পারবেন।
৮ বছর আগে সর্বশেষ বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট ম্যাচ খেলেছিলেন। একের পর এক ইনজুরি তার ক্যারিয়ারকে থমকে দিয়েছে কয়েক বার। তবে দমে যাননি। নিজেকে ফিরে পেতে চেষ্টা চালিয়ে গেছেন। ফিটনেস ধরে রেখে আর ইনজুরির সাথে পাল্লা দিয়ে এখনও খেলে যাচ্ছেন। বিরতি দিয়ে মাশরাফি খেলছেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট ম্যাচ।

সদ্য শেষ হওয়া বিসিএলের শেষ ম্যাচেও খেলেছেন প্রাইম ব্যাংকের হয়ে। এর আগে জাতীয় ক্রিকেট লিগে খুলনার হয়ে মাঠে নেমেছেন। টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নেওয়ার পর তার খেলার অপশন শুধু ওয়ানডে ক্রিকেট। তাই টেস্ট ক্রিকেটে ফিরতে মরিয়া নড়াইল এক্সপ্রেস। তবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট ম্যাচগুলো খেলছেন নিজেকে ফিরে পেতে, ফিট রাখতে। যদি মনে হয় টেস্ট ম্যাচের জন্য যথেষ্ট ফিটনেস পেয়ে গেছেন তখনই সাদা পোশাকে খেলার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন।

টেস্ট খেলার আগ্রহকে স্বাগত জানালেও বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন বেশ কিছু ইস্যুকে সামনে নিয়ে এসেছেন।

মিরপুরের ইনডোর স্টেডিয়ামে নাজমুল হাসান বলেছেন,‘আমি জানি না, ও টেস্টে ফিট কি না! কোথায় কোন দেশে টেস্ট খেলবে সে? দেশের বাইরে? তাহলে প্রতিদিন ওকে মিনিমাম ২০ থেকে ২৫ ওভার বোলিং করতে হবে।’

‘ও বলছে পারবে? তাহলে তো আমাদের কিছু বলার নেই। ফিজিও যদি অনুমতি দেয় আর ও যদি বলে পারবে তাহলে অবশ্যই স্বাগত জানাব। মনে করেন আমাদের দেশে খেলা, আমরা মাত্র ২ বা ৩ ওভার করাব… কিন্তু সে কী হিসেবে আসতে চায়, ব্যাটসম্যান না বোলার? সেটা বড় প্রশ্ন।’

‘আমি মনে করি সে যদি ফিট থাকে তিন সংস্করণে তার খেলা উচিত। তার মতো খেলোয়াড় পাওয়া কঠিন। বড় দৈর্ঘ্যের ক্রিকেটে খেলাটা তার এবং ফিজিওর ওপর নির্ভর করছে। আমাদের ধারণা, সে যদি ওয়ানডে খেলতে পারে টি-টোয়েন্টিও খেলা উচিত। ১০ ওভার যদি করতে পারে, ৪ ওভারও তার করা উচিত। এ কারণে তাকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। তখন সে আগ্রহ দেখায়নি। আমরা ধরে নিচ্ছি তার আগ্রহ নেই।’-বলেছেন নাজমুল হাসান।

৩৬ টেস্টে ৭৮ উইকেট পাওয়া মাশরাফিকে আবার সাদা পোশাকে দেখা যাবে কিনা তা সময় বলে দিবে। তবে আপাতত তাকে মনোযোগ দিবে হবে তার ফিটনেসে। ফিজিও অনুমতি দিলে যেকোনো সময় খুলে যেতে পারে টেস্টের দরজা।

You Might Also Like