দিনে নিখোঁজ; রাতে বাড়ির সামনে মিলল লাশ!

রাজশাহীর গোদাগাড়ীর মাটিকাটা ইউনিয়নের বাইপাস গ্রামে দিনে নিখোঁজ। আর রাতেই বাড়ির সামনে মিলল সাড়ে তিন বছরের শিশুর লাশ। পুলিশ শুক্রবার সকালে ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে।
নিহত তামিম ওই গ্রামের রাসেল হোসেনের ছেলে। তিনি পেশায় নির্মাণশ্রমিক।
গোদাগাড়ী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে শিশু তামিমকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। এরপর থেকে পরিবারের সদস্যরা তাকে খুঁজতে থাকেন। এলাকায় মাইকিং করা হয়। দিন পেরিয়ে সন্ধ্যা গড়ালেও তামিমের সন্ধান না পেয়ে রাতে থানায় তামিমের নিখোঁজের বিষয়টি অবহিত করেন বাবা রাসেল। এরপর শুক্রবার গভীর রাতে কে বা কারা তার লাশ বাড়ির সামনে ফেলে রেখে যায়।

নিহত তামিমের বাবা রাসেল হোসেন বলেন, ‘কারো সঙ্গে আমার বিরোধ নেই। তবে জমিজমা নিয়ে মাঝে-মধ্যে প্রতিবেশীদের কয়েকজনের সঙ্গে ঝামেলা হয়েছে। কে বা কারা আমার অবুঝ শিশুটিকে হত্যা করেছে, তা বুঝে উঠতে পারছি না।’
তিনি বলেন, ‘শুক্রবার গভীর রাতে তামিমের নিথর দেহ বাড়ির সামনে ফেলে রেখে চলে যায় দুর্বৃত্তরা। বিষয়টি পরিবারের সদস্যদের মধ্যে প্রথমে নজরে আসে তামিমের ফুপুর। বাড়ির বাইরে খড়ের মধ্যে একটি পোটলা দেখতে পাওয়া যায়। পরে সেটি বের করলে লাশটি গাছের ছাল দিয়ে পা বাঁধা ও প্লাস্টিকের বস্তা দিয়ে প্যাঁচানো অবস্থায় পাওয়া যায়। এ ছাড়া লাশের মাথায় আঘাত ছিল।’
এদিকে লাশ পাওয়ার পর পরিবারের সদস্যদের চিৎকার ও কান্নায় ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা। তামিমের লাশ দেখে পরিবারের সদস্যরা ছাড়াও প্রতিবেশীদের কান্নায় ভারি হয়ে ওঠে এলাকার পরিবেশ। একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে ওই পরিবারে এখন চলছে শোকের মাতম।

পরিদর্শক আলতাফ হোসেন বলেন, ‘এ নির্মম হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে আমরা তদন্ত শুরু করেছি। ইতোমধ্যে প্রতিবেশীদের প্রাথমিক জিঙ্গাসাবাদ করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

You Might Also Like