সালাহর রাতে আশা বাঁচিয়ে রাখল রোমা

মোহাম্মদ সালাহ লিভারপুলের জার্সিতে আবারো জ্বলে উঠলেন। নিজে করলেন দুই গোল। সতীর্থদের দিয়ে গোল করালেন দুটি। অ্যানফিল্ডে মিশরীয় ফরোয়ার্ডের ‘মাস্টারক্লাস’ পারফরম্যান্সে চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালের প্রথম লেগে রোমাকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে লিভারপুল। তবে শেষ মুহূর্তে পাওয়া দুটি ‘অ্যাওয়ে’ গোল ফিরতি লেগে আশা জোগাচ্ছে রোমাকে।

অ্যানফিল্ডে মঙ্গলবার রাতে ম্যাচের শুরুর দিকে লিভারপুলকে বেশ চেপে ধরেছিল রোমা। গোল পেতে লিভারপুলকে অপেক্ষা করতে হয়েছে ৩৫ মিনিট পর্যন্ত। রবার্তো ফিরমিনোর ক্রস থেকে বাঁ পায়ের কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন সালাহ।

বিরতির আগে সালাহই নিজের জোড়া গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। ফিরমিনোর বাড়ানো বল ধরে এগিয়ে গিয়ে বক্সের সামনে থেকে রোমার গোলরক্ষক অ্যালিসনের মাথার ওপর দিয়ে জালে পাঠিয়ে দেন মিশরীয় ফরোয়ার্ড। লিভারপুলের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় এক মৌসুমে ১০ গোল করলেন সালাহ।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের ৫৬ মিনিটে স্কোরলাইন ৩-০ করে ফেলেন প্রথমার্ধে দারুণ দুটি সুযোগ নষ্ট করা সাদিও মানে। ডান দিক থেকে সালাহর বাড়ানো বল জালে পাঠিয়ে দেন সেনেগালের এই ফরোয়ার্ড।

এরপর ৬১ ও ৬৮ মিনিটে দুই গোল করে লিভারপুলকে ফাইনালের পথে অনেকটাই এগিয়ে দেন ব্রাজিলিয়ান প্লে-মেকার ফিরমিনো। তার প্রথম গোলেও অবদান রাখেন সালাহ। পরের গোলটা জেমস মিলনের কর্নার থেকে ফিরমিনোর হেডে।

শেষ ১০ মিনিটে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় রোমা। অতিথিরা চার মিনিটের ব্যবধানে দুবার বল জড়ায় স্বাগতিকদের জালে। ৮১ মিনিটে রাদজা নাইনগোলানের ক্রস থেকে প্রথম গোলটা করেন এডেন জেকো। ৮৫ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করেন দিয়েগো পেরোত্তি।

কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে বার্সেলোনার মাঠে ৪-১ গোলে হারের পর নিজেদের মাঠে ফিরতি লেগে ৩-০ গোলে জিতেছিল রোমা। বার্সার মাঠে পাওয়া ‘অ্যাওয়ে’ গোলটাই ইতালিয়ান ক্লাবটিকে এনে দিয়েছিল সেমিফাইনালের টিকিট। লিভারপুলের মাঠে দুটি ‘অ্যাওয়ে’ গোলে রোমার সমর্থকরা তাই আশায় বুক বাঁধতে পারে। আগামী বুধবার হবে ফিরতি লেগ।

You Might Also Like