পঞ্চাশের হ্যাটট্রিক, ম্যাচসেরার হ্যাটট্রিকটা হলো না!

ব্যাটসম্যান লোকেশ রাহুলের মাথার ওপর দিয়ে গিয়ে বল আছড়ে পড়ল সীমানার ওপাড়ে। এই ছক্কায় ব্যক্তিগত ৪৩ থেকে গেইল পৌঁছে গেলেন ৪৯ রানে। আইপিএলে টানা তিন ম্যাচে পঞ্চাশ ছুঁতে গেইলের চাই আর ১ রান।

কিন্তু ওই ছক্কার পরই বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হয়ে গেল ইডেন গার্ডেনে। তাহলে কি ফিফটিটা হবে না গেইলের? এক ঘণ্টার বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও বৃষ্টি না থামায় শঙ্কাটা ভালোমতোই পেয়ে বসেছিল।

দর্শকদের অপেক্ষায় অবসান ঘটিয়ে অবশেষে বৃষ্টি থামল। দেড় ঘণ্টা পর আবার শুরু হলো খেলা। যেখানে শেষ করেছিলেন, ঠিক সেখান থেকেই যেন শুরু করলেন গেইল। বৃষ্টির পর প্রথম বলেই চাওলাকে আরেকটি ছক্কা হাঁকিয়ে পূর্ণ করলেন ফিফটি।

ইডেনে আজ ক্রিস লিনের ৭৪ ও দিনেশ কার্তিকের ৪৩ রানের সুবাদে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে ১৯২ রানের লক্ষ্য দিয়েছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স। সেই লক্ষ্য তাড়ায় বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হওয়ার আগেই ৮.২ ওভারে বিনা উইকেটে ৯৬ রান তুলে ফেলেন পাঞ্জাবের দুই ওপেনার গেইল ও রাহুল।
বৃষ্টির পর পাঞ্জাবের নতুন লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৩ ওভারে ১২৫। মানে ২৮ বল থেকে করতে হবে মাত্র ২৯ রান। সেটি গেইল-রাহুলের তাণ্ডবে ১১ বল বাকি থাকতেই পেরিয়ে যায় পাঞ্জাব। ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে পাঞ্জাব ম্যাচ জিতেছে ৯ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে।

ইংলিশ পেসার টম কুরানকে ছক্কা হাঁকিয়ে জয়সূচক রানটিও নিয়েছেন গেইল। ৩৮ বলে ৫ চার ও ৬ ছক্কায় ৬২ রানে অপরাজিত ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ব্যাটসম্যান। ২৭ বলে ৯ চার ও ২ ছক্কায় ৬০ রান করে ম্যাচসেরা হয়েছেন অবশ্য রাহুল। ফলে টানা তিন ম্যাচে ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচ’ হওয়া হয়নি গেইলের।

অথচ নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে গেইলকে একাদশেই রাখেনি পাঞ্জাব! ক্যারিবীয় তারকা চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে প্রথমবার পাঞ্জাবের একাদশে সুযোগ পেয়েই করেন ৩৩ বলে ৬৩। পরের ম্যাচে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে করেন সেঞ্চুরিই, ৬৩ বলে খেলেন অপরাজিত ১০৪ রানের টর্নেডো ইনিংস। আজ টানা তৃতীয় ম্যাচে পঞ্চাশ পার করলেন। মানে পঞ্চাশের হ্যাটট্রিক, ম্যাচসেরার হ্যাটট্রিকটা শুধু হলো না!

You Might Also Like