ফিরলেন আফ্রিদি

টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবেন অবসরে যাওয়া পাকিস্তানের অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদি।

সর্বশেষ ২০১৬ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর চূড়ান্তভাবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বিশ্বকে বিদায় জানান আফ্রিদি। বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেই শেষ জাতীয় দলের হয়ে মাঠে নামনে তিনি। কিন্তু চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে হঠাৎ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার ইচ্ছে পোষণ করেন আফ্রিদি। সেটাও এক ম্যাচের জন্য। তবে ম্যাচটি মহৎ উদ্যোগের জন্যই আয়োজন করেছে আইসিসি।

আগামী ৩১ মে লর্ডসে একটি চ্যারিটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও বিশ্ব একাদশ। গত বছরের সেপ্টেম্বরে হারিকেন ইরমা ও মারিয়ার আঘাতে লন্ডভন্ড হয়ে যায় ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জের দুই স্টেডিয়াম। মূলত স্টেডিয়াম দুটির সংস্কারে তহবিল গঠনের লক্ষ্যে এই ম্যাচ আয়োজন করছে আইসিসি। ম্যাচটিকে এরই মধ্যে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির মর্যাদাও দেওয়া হয়েছে।

এ ম্যাচে আফ্রিদিকে খেলার সুযোগ তৈরি করে দিয়েছে আইসিসি। আফ্রিদির সঙ্গে খেলবেন স্বদেশি শোয়েব মালিক এবং শ্রীলঙ্কার থিসারা পেরেরা।

বিশ্ব একাদশের বিপক্ষে চ্যারিটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচের জন্য শক্তিশালী দল ঘোষণা করেছে ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজ (সিডব্লিউআই)। ক্যারিবীয় দলকে নেতৃত্ব দেবেন অলরাউন্ডার কার্লোস ব্রাফেট।

২০০৯ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে শিরোপা জেতাতে বড় ভূমিকা রেখেছিলেন আফ্রিদি ও শোয়েব মালিক। আর পেরেরা ২০১৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কাকে জিতিয়েছিলেন শিরোপা। বিশ্ব একাদশের পূর্ণাঙ্গ স্কোয়াড কিছুদিনের মধ্যে ঘোষণা করবে আইসিসি। দলটিকে নেতৃত্ব দেবেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক এউইন মরগান।
বিশ্ব একাদশের হয়ে খেলতে পেরে সম্মানিত বোধ করছেন আফ্রিদি। আইসিসির পাঠানো এক বিবৃতিতে আফ্রিদি বলেছেন,‘মহৎ একটি উদ্যোগে নির্বাচিত হতে পেরে সম্মানিত বোধ করছি। ক্রিকেট এক বড় পরিবার কিন্তু আমরা একে অপরের বিপক্ষে খুব শক্তভাবে খেলে থাকি। আমাদের নিজেদের মধ্যে এটা দারুণ একটা সম্পর্ক। আমাদের সদস্য, সহকর্মী এবং ক্রিকেট সমর্থকদের সহায়তা করার জন্য যেকোন সময় এবং যেখানেই থাকি না কেন, তাদের পাশে দাঁড়াতে এবং সমর্থন করা আমাদের নৈতিক ও পেশাদার দায়িত্ব।’

লর্ডসে ফিরতে পেরে বেশ আনন্দিত আফ্রিদি,‘লর্ডস আইকনিক একটি ভেন্যু এবং এই ম্যাচটি হওয়ার জন্য পারফেক্ট। এ ভেন্যুতে আমার বেশ স্মৃতি রয়েছে। ১৯৯৯ সালে আইসিসি বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ খেলেছিল এবং ২০০৯ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালও খেলেছি। মে’তে আবার সেখানে যাওয়ার সুযোগ হচ্ছে। আশা করছি এবারও সমর্থকদের আনন্দ দিতে পারব।’

পাকিস্তানের স্পিন অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক বলেছেন,‘আইসিসি বিশ্ব একাদশে সুযোগ পাওয়া সম্মানের। পাশাপাশি বিশ্ব ক্রিকেটের বড় নামের ক্রিকেটারদের বিপক্ষে আরেকটি খেলার সুযোগ পেয়ে ভালো লাগছে।’

পেস অলাউন্ডার থিসারা পেরেরা বলেছেন,‘দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপে একাদশে সুযোগ পাওয়া সত্যিই গর্বের। গত বছরে পাকিস্তানের বিপক্ষে লাহোরে খেলেছিলাম। লর্ডসে পরের ম্যাচে খেলার অপেক্ষায় আছি।’

বিশ্ব একাদশের বিপক্ষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল : কার্লোস ব্রাফেট (অধিনায়ক), ক্রিস গেইল, এভিন লুইস, মারলন স্যামুয়েলস, আন্দ্রে রাসেল, আন্দ্রে ফ্লেচার, রোভম্যান পাওয়েল, দিনেশ রামদিন (উইকেটকিপার), রায়াদ এমরিট, অ্যাশলে নার্স, কেমো পল, স্যামুয়েল বদ্রি ও কেশরিক উইলিয়ামস।

You Might Also Like