হত্যার হুমকিদাতার সঙ্গে একই জেলে সালমান

কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় সালমান খানকে কারাদণ্ড দেয়ার পর যোধপুর সেন্ট্রাল জেলে নেয়া হয়েছে তাকে। একই জেলে রয়েছে কয়েকদিন আগে সালমানকে প্রাণনাশের হুমকিদাতা গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোই।

কৃষ্ণসার হরিণ মামলায় অভিযুক্ত হওয়ার পর থেকেই সালমানের প্রতি ক্ষিপ্ত লরেন্স। রাজস্থান-হরিয়ানায় অপরাধী তালিকার শীর্ষে রয়েছে তার নাম। খুনের চেষ্টা, হুমকি, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, অপহরণসহ বেশ কিছু মামলা চলছে তার বিরুদ্ধে। চলতি বছরের শুরুতে লরেন্স বিষ্ণোই যোধপুর আদালতে চত্বরে দাঁড়িয়ে সালমানের প্রাণনাশের হুমকি দেয়। কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলার শুনানিতে অংশ নিতে সেখানে গিয়েছিলেন সালমান। অন্যদিকে লরেন্সও একটি মামলার কারণে আদালতে গিয়েছিল।

এছাড়া একই জেলে রয়েছে ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত স্বঘোষিত ধর্মগুরু আসারাম বাপু, খুনের অভিযুক্ত শম্ভুলাল রাইগড়ের মতো আসামিরা।

বৃহস্পতিবার যোধপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দেব সিং খাতরি কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় সালমানকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেন। অভিযুক্ত অন্যরা এ মামলা থেকে অব্যাহতি পান।

১৯৯৮ সালে হিন্দি সিনেমা হাম সাথ সাথ হ্যায়’র শুটিং চলাকালীন যোধপুরের কাছে কঙ্কনী গ্রামে বিরল প্রজাতির কৃষ্ণসার হরিণ শিকারের অভিযোগ ওঠে সালমানের বিরুদ্ধে। পরবর্তী সময়ে এ বিষয়ে মামলাও দায়ের হয়। সিনেমাটিতে সালমান খানের সহশিল্পী সাইফ আলী খান, সোনালী বেন্দ্রে, টাবু ও নীলমকেও এ মামলায় অভিযুক্ত করা হয়।

You Might Also Like