এস-৪০০ সরবরাহে গতি আনতে চায় রাশিয়া ও তুরস্ক

রাশিয়ায় তৈরি অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ তুরস্কের কাছে সরবরাহের কাজে গতি আনতে সম্মত হয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

মঙ্গলবার আঙ্কারায় তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগানের সঙ্গে বৈঠকের পর এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান পুতিন। তিনি বলেন, “তুরস্কের কাছে রাশিয়ার উচ্চ কার্যক্ষমতাসম্পন্ন এই ব্যবস্থা হস্তান্তরের কাজ আরো দ্রুত শেষ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।”

পুতিন আরো বলেন, তুরস্কের পক্ষ থেকে অনুরোধ করার পর তার সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ কেনার জন্য মস্কোর সঙ্গে ২০০ কোটি ডলারের চুক্তি করেছে আঙ্কারা। চুক্তি অনুযায়ী, ২০২০ সালের গোড়ার দিকে এ ব্যবস্থা সরবরাহ শুরু করার কথা রয়েছে।

তবে মার্কিন সরকার তুরস্ককে এ ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ ব্যবস্থা কেনার ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, এটি সংগ্রহ করলে আঙ্কারার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিতে পারে ওয়াশিংটন।
ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা ৪০২ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত আকাশে চলমান যেকোনো বিমান, ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্রকে শনাক্ত করে কার্যকরভাবে ধ্বংস করে দিতে সক্ষম। রাশিয়া এখন পর্যন্ত এ ব্যবস্থা শুধু চীন ও ভারতের কাছে বিক্রি করেছে।

২০১৫ সালে সিরিয়া-তুর্কি সীমান্ত থেকে আমেরিকা তার ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা- প্যাট্রিয়ট সরিয়ে নেয়ার পর তুরস্ক রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ সংগ্রহ করার সিদ্ধান্ত নেয়। আমেরিকা প্যাট্রিয়ট সরিয়ে নেয়ার ফলে তুরস্কের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দুর্বল হয়ে পড়েছে বলে আঙ্কারা মনে করছে।

You Might Also Like