মিয়ানমারে ‘ক্ষতি উস্কে’ দিতে ব্যবহৃত হচ্ছে ফেসবুক : জাকারবার্গ

ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী ও সহ-প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ বলেছেন, ফেসবুক এ বিষয়ে ওয়াকিবহাল যে, মিয়ানমারে রোহিঙ্গাবিরোধী অপপ্রচার ছড়াতে ও ‘সত্যিকারের ক্ষয়ক্ষতি উস্কে’ দিতে এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি ব্যবহৃত হচ্ছে।

অনলাইন সংবাদমাধ্যম ভক্সে সোমবার প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন জাকারবার্গ।

তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গা মুসলিম ও রাখাইন বৌদ্ধদের মধ্যে সংঘর্ষ উস্কে দেয় এমন বার্তা ছড়িয়ে দিতে ফেসবুকের ব্যবহার হচ্ছে। এটি যেন না হয়, সেদিকে মনোযোগ দিচ্ছে ফেসবুক।’

জাকারবার্গ বলেন, ‘আমি মনে করি, মিয়ানমার ইস্যুটি কোম্পানির ভেতরে যথেষ্ট মনোযোগ আকর্ষণ করেছে। আমার মনে আছে, এক শনিবার সকালে আমি একটি ফোন পেলাম এবং আমরা চিহ্নিত করতে পেরেছিলাম যে, লোকজন সংবেদনশীল বার্তা ছড়ানোর চেষ্টা করছিল- সেবার সেটি ছিল ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে। মুসলিম ও বৌদ্ধ দুই পক্ষই এ কাজ করার চেষ্টা করেছিল। তারা ছড়ানোর চেষ্টা করছিল যে, অপর পক্ষ হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে। তাই তোমরাও অস্ত্র নিয়ে প্রস্তুত হও এবং ওই স্থানে যাও।’

তিনি বলেন, ‘এসব ক্ষেত্রে আমি মনে করি, এটা স্পষ্ট যে লোকজন আমাদের মাধ্যমকে সত্যিকারের ক্ষয়ক্ষতি উস্কে দিতে ব্যবহারের চেষ্টা করছে। এখন, এসব ক্ষেত্রে আমাদের প্রক্রিয়া চিহ্নিত করে যে, এই ধরনের কার্যকলাপ ঘটছে। আমরা ওইসব বার্তা ছড়ানো বন্ধ করেছিলাম। সত্যিকার অর্থেই আমরা এসব বিষয়ে খুব বেশি মনোযোগ দিচ্ছি।’

তথ্যসূত্র : দ্য স্ট্রেইট টাইমস

You Might Also Like