ফেসবুকের দুঃসময়!

ব্যবহারকারীদের তথ্য সুরক্ষার ব্যর্থতায় সমালোচিত হওয়ার পাশাপাশি বিপর্যয়ের মুখোমুখি বিশ্বের শীর্ষ সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইট ফেসবুক। ফেসবুক অনুমোদিত ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা প্রতিষ্ঠানের অ্যাপ ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য অপব্যবহারের কেলেঙ্কারিতে সরকারি তদন্তের মুখোমুখি, শেয়ার বাজারে দরপতন, ব্যবহারকারীদের মামলা, ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলিট- একের পর এক সঙ্কটের জালে আরো জড়িয়ে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।
তথ্য অপব্যবহারের অভিযোগে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলিট করছেন অনেক ব্যবহারকারী। এই ট্রেন্ডে সর্বশেষ যুক্ত হয়েছে প্লেবয় ম্যাগাজিন। গতকাল মঙ্গলবার রাতে, প্রতিষ্ঠানটি এক বিবৃতিতে ফেসবুক থেকে নিজেদেরকে প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে। প্লেবয় এন্টারপ্রাইজ পরিচালিত ফেসবুক পেজগুলোর অনুসারী ২৫ মিলিয়নের বেশি। প্লেবয় তাদের বিবৃতিতে জানায়, ‘ফেসবুকে ব্যবহারকারীদের তথ্যের অপব্যবহার সম্পর্কে সাম্প্রতিক ঘটনায় আমরা এই প্লাটফর্মটিতে আমাদের কার্যক্রম স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ২৫ মিলিয়নের বেশি ভক্ত বিভিন্ন পেজগুলোর মাধ্যমে প্লেবয়-এর যুক্ত এবং তথ্যের অসুরক্ষিত এই প্রক্রিয়ায় আমরা তাদেরকে জড়াতে চাই না।’

এর আগে গত শুক্রবার ফেসবুক পেজ ডিলিটের ঘোষণা দিয়েছিলেন প্রযুক্তি বিশ্বের খ্যাতনামা উদ্ভাবক এলন মাস্ক। ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গের তথ্য কেলেঙ্কারির ঘটনায় তিনি ‘টেসলা’ এবং ‘স্পেস এক্স’ ফেসবুক পেজ দুইটি ডিলিট করে দেন। এছাড়াও হোয়াটসঅ্যাপের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ব্রায়ান অ্যাকটন ফেসবুক বয়কটের আহবান জানিয়েছেন সকলকে।

৫০ মিলিয়ন ব্যবহারকারীর তথ্য যুক্তরাজ্যের প্রতিষ্ঠান কেমব্রিজ অ্যানালাইটিকা তাদের ফেসবুক অ্যাপের মাধ্যমে অগোচরে মার্কিন নির্বাচনে কাজে লাগিয়েছে, ব্যবহারকারীদের তথ্য সুরক্ষায় এমন ব্যর্থতার অভিযোগে ১৬ মার্চ থেকে ক্রমেই জেরবার ফেসবুক। যুক্তরাজ্য এবং যুক্তরাষ্ট্রে ফেসবুকের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক ভাবে সরকারি তদন্ত শুরু হয়েছে। যুক্তরাষ্ট এবং যুক্তরাজ্য- উভয় দেশই তাদের সংসদীয় কমিটির সামনে হাজির হতে বলেছেন মার্ক জাকারবার্গকে। তবে যুক্তরাষ্ট্রে কংগ্রেসের সামনে সাক্ষ্য দিতে জাকারবার্গ রাজি হলেও, যুক্তরাজ্যের সংসদীয় কমিটির সামনে সাক্ষ্য দিতে রাজি হননি তিনি। গতকাল যুক্তরাজ্যের সংসদীয় কমিটির প্রস্তাব প্রত্যাখ্যানের ঘটনায় জাকারবার্গের সমালোচনা নতুন করে শুরু হয়েছে।
শেয়ার বাজারেও ফেসবুকের বিধ্বস্তত হওয়ার আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে। তথ্য অপব্যবহারের কেলেঙ্কারি ফাঁস ও সরকারের তদন্তের ঘোষণায় শেয়ার বাজারে ফেসবুকের দরপতন হয়েছে ১৬ শতাংশের বেশি। দরপতন অব্যাহত থাকায় গত কয়েকদিনে ৫০ বিলিয়ন ডলারের বেশি আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে ফেসবুক।

এদিকে গতকাল মঙ্গলবার ফেসবুকে বিরুদ্ধে নতুন অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেছেন তিনজন ব্যবহারকারী। ক্যালিফোর্নিয়ার নর্দার্ন ডিসট্রিক্টের ফেডারেল আদালতে দায়ের করা এই মামলায়- ফেসবুকের বিরুদ্ধে ব্যবহারকারীর ফোনকল ও টেক্সট মেসেজের তথ্য সংগ্রহ করে ব্যক্তিগত গোপনীয়তা লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়েছে। মামলাটি ক্ষতিগ্রস্ত সব ফেসবুক ব্যবহারকারীর পক্ষ থেকে করা হয়েছে এবং অনির্দিষ্ট পরিমাণ ক্ষতিপূরণ চাওয়া হয়েছে।

সব মিলিয়ে সময় বড়ই খারাপ যাচ্ছে মার্ক জাকারবার্গ এবং তার প্রতিষ্ঠিত ফেসবুকের।

তথ্যসূত্র : দ্য ভার্জ

You Might Also Like