সিরিয়ার পারমাণবিক চুল্লি ধ্বংস করেছিল ইসরায়েল

বিমান হামলা চালিয়ে ২০০৭ সালে সিরিয়ার একটি সন্দেহভাজন পারমাণবিক চুল্লি ধ্বংসের দায় আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকার করেছে ইসরায়েলের সেনাবাহিনী। ওই অভিযানের তথ্য প্রকাশে ১০ বছরের বেশি সময় ধরে থাকা সেন্সরশিপ উঠে যাওয়ার পর দেশটির সেনাবাহিনী বুধবার এ দায় স্বীকার করল।

এতে বলা হয়েছে, পূর্ব দেইর-আল-জো অঞ্চলে হামলাটি চালিয়ে ইসরায়েল ও ওই অঞ্চলের জন্য বড় ধরনের হুমকিকে সরিয়ে দেওয়া হয়।

সেনাবাহিনীর ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পারমাণবিক চুল্লিটি নির্মাণকাজের শেষ পর্যায়ে ছিল।

দীর্ঘদিন ধরেই সন্দেহ করা হচ্ছিল ইসরায়েল এই হামলা চালিয়েছে। তবে তেল আবিব কখনো এ বিষয়ে মুখ খোলেনি। এছাড়া সিরিয়াও কখনো স্বীকার করেনি বোমা হামলার স্থানটিতে তারা পারমাণবিক কোনো চুল্লি নির্মাণ করছিল।

আন্তর্জাতিক আনবিক শক্তি সংস্থা অতীতে জানিয়েছিল, সিরিয়ার ওই স্থাপনাটি ছিল অনেকটি পারমাণবিক চুল্লির মতো। সম্ভবত এটি উত্তর কোরিয়ার সহযোগিতায় নির্মাণ করা হচ্ছিল।

বুধবার এক টুইটারবার্তায় ইসরায়েলের গোয়েন্দামন্ত্রী ইসরায়েল কাৎজ বলেছেন, ‘অভিযান ও এর সফলতা এটা সুস্পষ্ট করছে যে, ইসরায়েলের অস্তিত্বের জন্য হুমকি সৃষ্টি করে এমন কোনো স্থাপনা প্রতিষ্ঠার কোনো সুযোগ কাউকে দেওয়া হবে না-আগে ছিল সিরিয়া, এখন রয়েছে ইরান।’

You Might Also Like