গণতন্ত্র হুমকির মুখে, ব্যাংকে চলছে হরিলুট: সিপিবি

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) নেতৃবৃন্দ আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন, দেশ আরো গভীর সংকটে পড়তে যাচ্ছে। গণতন্ত্র হুমকির মুখে। মানুষকে কথা বলতে দেয়া হচ্ছে না। ব্যাংকে চলছে হরিলুট। হাজার হাজার কোটি টাকা অবাধে লুট হচ্ছে। আর এই লুটপাটে সহায়তা করছে খোদ সরকার। কোটি কোটি ডলার পাচার হচ্ছে এবং বিদেশে সেকেন্ড হোম গড়ে তুলছে এই লুটপাটকারীরা। এখনই এদের থামাতে হবে।

আজ (মঙ্গলবার) সিপিবি’র ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর লোহারপূল এলাকায় লাল পতাকা মিছিল সমাবেশে নেতারা এ আশঙ্কার কথা জানান। ‘সাম্প্রদায়িকতা, সাম্রাজ্যবাদ, লুটপাটতন্ত্র, গণতন্ত্রহীনতা নিপাত যাক’- শ্লোগানকে সামনে রেখে পার্টির পতাকা উত্তোলন লাল পতাকা উত্তোলনের পর দলের নেতৃবৃন্দ বক্তৃতা করেন।

সিবিপি নেতারা অভিযোগ করেন, দেশে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে বাধা দেয়া হচ্ছে। সন্ত্রাসী-লুটপাটকারীরা সরকারি দলের ছত্রচ্ছায়ায় থেকে সরকারকে ক্ষমতায় রাখছে আর সেই সুযোগে নিজেদের আখের গুছাচ্ছে। এই রকম বাংলাদেশের জন্য মুক্তিযুদ্ধ হয় নাই। কোনোভাবেই এই অবস্থা মেনে নেয়া যায় না।
তারা বলেন, সামনেই নির্বাচন। কমিউনিস্টরা এবারও কাস্তে মার্কা নিয়ে নির্বাচনে যাবে। জনতার সমর্থনে কমিউনিস্টরা ক্ষমতায় আসতে চায়। যদিও অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ নির্বাচন আজ সুদূর পরাহত। পেশিশক্তি ও কালো টাকার নির্বাচনে জনগণের প্রাণ আজ উষ্ঠাগত। তা সত্ত্বে এবারে জোর লড়াই করতে হবে, এবারের সংগ্রাম হবে শোষণ থেকে মানুষের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম হবে মুক্তিযুদ্ধের স্বপ্নস্বাধ বাস্তবায়নের সংগ্রাম। যুগে যুগে কালে কালে মানুষের জয় হয়েছে। মেহনতি মানুষের জয় অনিবার্য।

তারা আরো বলেন, সাম্প্রদায়িকতা আজ যেকোনো সময়ের রেকর্ড ভেঙেছে, শিক্ষক হুমায়ূন আজাদ থেকে শুরু করে জাফর ইকবালের ওপর হামলা সবই সাম্প্রদায়িক রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতার ফসল। সাম্রাজ্যবাদের আগ্রাসনে রোহিঙ্গাসহ বিভিন্ন ঘটনা ঘটছে।

You Might Also Like