প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে ভোট চাইছেন, তা অনৈতিক এবং বেআইনি : মওদুদ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেছেন, বিভিন্ন স্থানে জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন যেভাবে ভোট চাইছেন, তা আইনের লঙ্ঘন। এটা অনৈতিক এবং বেআইনি।
শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে লেবার পার্টির একাংশের উদ্যোগে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি, জাতীয় নির্বাচন ও বর্তমান প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এক বক্তব্যে এই দাবি করেন তিনি।
ইতোপূর্বে প্রধানমন্ত্রীর সিলেট ও রাজশাহী সফরের সময় জনসভায় নৌকার পক্ষে ভোট চাওয়া নিয়ে নির্বাচন কমিশনে নালিশ জানিয়েছিল বিএনপি; তবে ইসি বলছে, তফসিল ঘোষণার আগে তাদের করার কিছু নেই।
মওদুদ বলেন, আজকে প্রধানমন্ত্রী খুলনা যাবেন। উন্নয়নের কথা বলে ভোট চাইবেন, নৌকায় ভোট চাইবেন। তিনি সরকারি খরচে যাবেন, হেলিকপ্টারে যাবেন এবং সমস্ত খরচ বহন করবে সরকার।
তিনি বলেন, যেহেতু তারা জানেন, নির্বাচন কমিশনের বিধিতে আছে, তফসিল ঘোষণার পরে উন্নয়নের কোনো ওয়াদা করতে পারবেন না, সেজন্য তারা এই সময়ে সেই সুযোগ নিচ্ছেন।
মওদুদ আরো বলেন, বিরোধী দলকে তালাবদ্ধ করে রাখা, গৃহবন্দি করে রাখা, জেলখানায় রাখা, কোনো সভা-সমাবেশ করতে না দেওয়া এমনকি ঘরোয়া বৈঠক করতেও না দেওয়া- এটা চলতে পারে না। বাংলাদেশের মানুষ আগামী নির্বাচনে এর জবাব দেবে।
এ ক্ষেত্রে ইসির ‘নিষ্ক্রিয়’ ভুমিকার সমালোচনা করে মওদুদ বলেন, নির্বাচন কমিশন বলছে, তাদের কিছু করার নেই। তাদের (ইসি) শক্তি নাই, সাহস নাই। তারা তো নিরপেক্ষ না। তাহলে তো তারা সরকারের একটি তল্পিবাহক প্রতিষ্ঠান। সেজন্য তারা এই কথা বলেন।
তিনি বলেন, আজকে যদি ভারতে হত, তাহলে ভারতের চিফ ইলেকশন কমিশনার ব্যবস্থা নিতেন। ইসিকে বলব, হয় তাদেরকে বন্ধ করেন, না হয় আমাদেরও অনুমতি দেন, যাতে আমরাও ধানের শীষে ভোট চাইতে পারি।
লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলু, মীর মো. নাছিরউদ্দিন, নিতাই রায় চৌধুরী, নির্বাহী কমিটির সদস্য রফিক শিকদার, লেবার পার্টির মহাসচিব ফরিদ উদ্দিন, সহসভাপতি ফারুক রহমান, আমিনুল ইসলাম, এস এম ইউসুফ আলী, জহিরুল হক, যুগ্ম সম্পাদক নুরুল ইসলাম সিয়াম, আবদুর রাজ্জাক রাজু, হুমায়ুন কবির, আল আমিন প্রমূখ।

You Might Also Like