সরকার প্রতিহিংসার আগুনে পুড়ছে : নজরুল

খালেদা জিয়া কারান্তরীণ হওয়ার পর বিএনপি সহিংস কর্মসূচি নিয়ে মাঠে না নামায় সরকার ‘প্রতিহিংসার আগুনে পুড়ছে’ বলে মন্তব্য করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

রোববার রাজধানীর নয়াপল্টনে এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ মনে করেছিল, খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানোর পর বিএনপির নেতাকর্মীরা রাজপথে গাড়ি ভাঙচুর করবে। আর সেই সুযোগে সরকারি দলের নেতাকর্মীরা রাজপথে নাশকতা করবে, গাড়িতে আগুন দেবে। আর দোষ দেবে বিএনপির। কিন্তু তাদের সেই স্বপ্ন পূরণ না হওয়ায় প্রতিহিংসার আগুনে পুড়ছে।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘আওয়ামী লীগ প্রতিহিংসার রাজনীতি করে। তাতে বিএনপির কী ক্ষতি হয়েছে? বরং আওয়ামী লীগের প্রতিহিংসার কারণে দেশবাসীর কাছে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দেশনেত্রী থেকে মা হয়ে গেছেন। তিনি এখন দেশের বিপুলসংখ্যক মানুষের কাছে সবচেয়ে বেশি শ্রদ্ধার পাত্র।’

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দেশব্যাপী গণস্বাক্ষর কর্মসূচির অংশ হিসেবে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই কর্মসূচির আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী সামাজিক সংস্থা-জাসাস।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘মিথ্যা মামলায় বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠানোর ঘটনা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাই ভালোভাবে নেননি। এই বানোয়াট মামলায় দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রীর সাজার ঘটনায় তারা অনেকেই এর সমালোচনা করেছেন। সরকারের এমন প্রতিহিংসাপরায়ণ আচরণে মর্মাহত হয়েছেন।’

খালেদা জিয়া তিনবারের প্রধানমন্ত্রী হওয়া সত্বেও সরকার তার সাথে সঠিক আচরণ এবং তার প্রাপ্ত সম্মান তাকে দেয়নি বলেও দাবি করেন বিএনপির অন্যতম এই নীতিনির্ধারক।

তিনি বলেন, ‘আমাদের নেত্রী কোনো অপরাধ করেননি। কোনো দুর্নীতির সাথে তিনি সম্পৃক্ত ছিলেন না। তাকে দুর্নীতির আইনে বিচারও করা হয় নাই।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ড. মামুন আহমেদের সভাপতিত্বে গণস্বাক্ষর কর্মসূচিতে আরো বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, জাসাসের সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক হেলাল খান, সাংগঠনিক সম্পাদক শিবা শানু প্রমুখ।

You Might Also Like