আমেরিকার নির্বাচনে হস্তক্ষেপের জন্য রাশিয়াকে দায়ী করা ‘অর্থহীন ও হাস্যকর’: মস্কো

মার্কিন বিচার বিভাগের পক্ষ থেকে দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপের জন্য ১৩ রুশ নাগরিকের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে তাকে ‘অর্থহীন ও হাস্যকর’ বলে মন্তব্য করেছে রাশিয়া।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া যাখারোভা ওয়াশিংটনের উদ্দেশে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়ে বলেছেন, “১৩ ব্যক্তি মার্কিন নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করল? মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর জন্য বরাদ্দকৃত হাজার হাজার কোটি ডলারের বাজেটের বিরুদ্ধে ১৩ ব্যক্তি কাজ করল? এত এত অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ও নিরাপত্তা সংস্থা তাহলে কি করল? অর্থহীন ও হাস্যকর নয় কি? -অবশ্যই।”

তিনি রুশ নাগরিকদের বিরুদ্ধে মার্কিন অভিযোগকে সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে প্রত্যাখ্যান করেন।

শুক্রবার মার্কিন বিচার বিভাগের বিশেষ কৌঁসুলি রবার্ট মুলার ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপের জন্য ১৩ রুশ নাগরিক ও তিনটি প্রতিষ্ঠানকে দায়ী করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে এ বিষয়ে কথিত তদন্ত শেষ করে এক প্রতিবেদনে এ দাবি করেন।
এর আগে দিনের শুরুতে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে সমর্থনের জন্য মস্কো রাষ্ট্রীয়ভাবে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। অবশ্য নয়া মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রতি রাশিয়ার কোনো কোনো নাগরিকের সমর্থন থেকে থাকতে পারে।

ল্যাভরভ ইউরোনিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে আরো বলেন, ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর এক বছরেরও বেশি সময় পার হয়ে গেলেও ওয়াশিংটনের সঙ্গে মস্কোর সম্পর্কে উন্নতি হয়নি বরং এর আগের ডেমোক্র্যাটিক শাসনামলের চেয়ে খারাপ হয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করে রাশিয়া ডোনাল্ড ট্রাম্পকে জিতিয়ে দিয়েছে বলে ২০১৬ সালের নভেম্বরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনের পরপরই অভিযোগ ওঠে। সে অভিযোগ তদন্ত করে দেখার অন্যতম দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল রবার্ট মুলারকে।

You Might Also Like