দ. কোরিয়ায় আসছেন উ. কোরিয়ার রাষ্ট্রপ্রধান

যুদ্ধোন্মুখ অবস্থা থেকে ফিরে সুসম্পর্কের দ্বার খোলার ইঙ্গিত দিয়ে আলংকারিক রাষ্ট্রপ্রধানকে দক্ষিণ কোরিয়ায় পাঠাচ্ছে উত্তর কোরিয়া।

দক্ষিণ কোরিয়ায় শুক্রবার থেকে অনুষ্ঠেয় শীতকালীন অলিম্পিক উপভোগ করবেন উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ পদাধিকারী নেতা কিম ইয়ং-ন্যাম। তবে দেশটির সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণকারী নেতা কিম জং-উন।

কিম ইয়ং-ন্যামের সফরসঙ্গী হয়ে দক্ষিণ কোরিয়ায় আসছেন উত্তর কোরিয়ার আরো ২১ কর্মকর্তা। শীতকালীন অলিম্পিকে উত্তর কোরিয়ার অংশ নেওয়াকে দেশটির কূটনৈতিক কৌশল হিসেবে দেখা হচ্ছে। তবে একে বিদ্যমান উত্তেজনা প্রশমনের সুযোগ হিসেবে নিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অভিন্ন পতাকা নিয়ে মাঠে নামবে দুই কোরিয়া।

পরমাণু অস্ত্র তৈরি ও ক্ষেপণাস্ত্র কার্যক্রম অব্যাহত রাখায় সম্প্রতি ব্যাপক আন্তর্জাতিক চাপের মুখে পড়েছে উত্তর কোরিয়া। জাতিসংঘ ও যুক্তরাষ্ট্র কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। চীন ও রাশিয়াও জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়ন করতে কঠোরতা দেখাচ্ছে।

তারা জাহাজে আসবেন
সোমবার উত্তর কোরিয়া প্রস্তাব দিয়েছে, তাদের পারফরমার-রা জাহাজে দক্ষিণ কোরিয়ায় পৌঁছাবে। তবে নৌপথে আসার সুযোগ দিতে দ্বিপক্ষীয় নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে হবে বা স্থগিত করতে হবে। কারণ ২০১০ সাল থেকে উত্তর কোরিয়ার সব ধরনের জাহাজ দক্ষিণ কোরিয়ার বন্দরে আসা নিষিদ্ধ।

দক্ষিণ কোরিয়ার একত্রীকরণ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, পিয়ংইয়ং প্রস্তাব দিয়েছে, পরিবহন ও প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বহনের জন্য ‘ম্যাংইয়ংব্যাং ৯২’ নামের জাহাজ ব্যবহার করবে তাদের প্রতিনিধিরা। এই জাহাজটি সাধারণত উত্তর কোরিয়া ও রাশিয়ার মধ্যে চলাচল করে থাকে।

দক্ষিণ কোরীয় মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাইক তায়ে-হায়ুন এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ‘নিষেধাজ্ঞায় অব্যাহতি দিতে চাইছি আমরা… যাতে সুন্দরভাবে অলিম্পিক আয়োজন করা যায়।’

দুই কোরিয়ার নারী খেলোয়াড়দের নিয়ে গঠিত সম্মিলিত কোরীয় আইস হকি দল রোববার সুইডেনের সঙ্গে প্রথম প্রীতি ম্যাচ খেলে ১-৩ গোলে হেরেছে। উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার খেলোয়াড়দের নিয়ে গঠিত নতুন টিমের জন্য এটিই ছিল একমাত্র প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ।

উত্তর কোরিয়ার পার্লামেন্টের প্রধান কিম ইয়ং-ন্যাম এবং তার এই সফর হবে গত চার বছরের মধ্যে উত্তর কোরিয়ার কোনো ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার প্রথম দক্ষিণ কোরিয়া সফর। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের কার্যালয় ব্লু হাউসের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিবিসিকে বলেছেন, তারা মনে করে আন্তঃকোরীয় সম্পর্কোন্নয়নে উত্তর কোরিয়ার সদ্বিচ্ছার প্রতিফলন এটি এবং এর মাধ্যমে উত্তরের শাসন আন্তরিকতার বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার পর্বতাঞ্চলীয় কাউন্টি পায়োংচাংয়ে শুক্রবার অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কিম ইয়ং-ন্যাম অংশ নেবেন কিনা, তা এখনো পরিষ্কার হওয়া যায়নি। তবে যদি তিনি এই অনুষ্ঠানে অংশ নেন, তাহলে সেখানে তার সঙ্গে দেখা হবে যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের। উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্র তৈরির অভিলাসের পথে সবচেয়ে বড় বাধা যুক্তরাষ্ট্র।

রোববার ওয়াশিংটন পোস্টের এক খবরে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়ায় কারাবন্দি অবস্থায় গুরুতর অসুস্থ হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রে ফেরার কয়েক দিনের মাথায় মারা যাওয়া মার্কিন শিক্ষার্থী অটো ওয়ার্মবিয়ারের বাবা ফ্রেড ওয়ার্মবিয়ার মাইক পেন্সের আমন্ত্রণে অতিথি হিসেবে অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্টেট অব দি ইউনিয়ন ভাষণের দিন তার অতিথি হিসেবে উপস্থিতি ছিলেন ওয়ার্মবিয়ার ও তার স্ত্রী সিনডি।

গত বছর একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার মাধ্যমে উত্তর কোরিয়া তাদের পরমাণু সক্ষমতার প্রমাণ দেওয়ার চেষ্টা করেছে। এ নিয়ে কোরীয় উপদ্বীপসহ বিশ্বজুড়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা চরমে পৌঁছালে উত্তর কোরিয়া হঠাৎ মোড় নেয় এবং দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নের পথে পা বাড়ায়। নববর্ষের ভাষণে উত্তরের নেতা কিম জং-উন বলেন, শীতকালীন অলিম্পিকে অংশ নিয়ে চান তারা। এরপর দক্ষিণ কোরিয়া আলোচনার প্রস্তাব দেয়। প্রায় দুই বছর পর দুই দেশের মধ্যে প্রথম আলোচনা ফলপ্রসূ হয় এবং দক্ষিণ কোরিয়ায় খেলোয়াড় পাঠাতে রাজি হয় উত্তর কোরিয়া। শুধু তাই নয়, আলোচনার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, অলিম্পিকে একটি অভিন্ন পতাকা উড়াবে কোরিয়ানরা।

৯-২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অলিম্পিক চলবে। তবে এর পরেই যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া যৌথ সামরিক মহড়া শুরু করবে। উত্তর কোরিয়া বরাবরই এ ধরনের মহড়ায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখায়।

তথ্যসূত্র : বিবিসি অনলাইন

You Might Also Like