দুই কোরিয়াকে একত্রীকরণের অভূতপূর্ব আহ্বান

দুই কোরিয়াকে আবার এক দেশে পরিণত করার জন্য চেষ্টা চালাতে সব কোরিয়াবাসীকে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রচেষ্টা চালানোর আহ্বান জানিয়েছে উত্তর কোরিয়া। দেশটির রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত বার্তা সংস্থা কেসিএনএ বলেছে, দুই কোরিয়ার মধ্যে সম্পর্ক, সফর বিনিময় ও সহযোগিতা এতটা বাড়াতে হবে যাতে দু’দেশকে আবার একত্রীকরণ করা যায়।
কেসিএনএ আজ বৃহস্পতিবার সকালে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এই অভূতপূর্ব আহ্বান জানিয়েছে।
বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কোরীয় উপদ্বীপের পুনরেকত্রীকরণের পথে বিরাজমান সব বাধা ‘ধ্বংস’ করে ফেলবে উত্তর কোরিয়া। বিবৃতিতে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে দেশটির সুসম্পর্কের পথে সামরিক উত্তেজনাকে ‘প্রধান বাধা’ বলে অভিহিত করা হয়।
‘বহিঃশক্তির’ সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়াও দুই কোরিয়ার সম্পর্কের মধ্যে প্রতিবন্ধকতা হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে বিবৃতিতে জানানো হয়। এসব বাধা দূর করতে প্রচেষ্টা চালানোর জন্য দেশে-বিদেশে অবস্থানরত সব কোরিয়াবাসীকে আহ্বান জানিয়েছে কেসিএনএ।
এই বার্তা সংস্থার মন্তব্যধর্মী প্রতিবেদন ও বিবৃতিকে উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় অবস্থান বলে মনে করা হয়।
দুই কোরিয়ার মধ্যে কোনো খেলা অনুষ্ঠিত হলেই গ্যালারিতে এই একক পতাকাটি প্রদর্শন করেন দর্শকরা
দক্ষিণ কোরিয়ায় অনুষ্ঠেয় আসন্ন শীতকালীন অলিম্পিকে দুই কোরিয়া একক পতাকাতলে অংশগ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নেয়ার পর উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে এ আহ্বান জানানো হলো। সম্প্রতি দুই কোরিয়ার সীমান্তবর্তী পানমুনজম গ্রাম অনুষ্ঠিত বৈঠকে দু’দেশের কর্মকর্তারা ওই সিদ্ধান্ত নেন।
দুই কোরিয়ার ‘একক পতাকা’ হচ্ছে একটি অনানুষ্ঠানিক পতাকা যা দুই দেশের মধ্যে কোনো ক্রীড়া প্রতিযোগিতার সময় তাদের সমর্থকরা প্রদর্শন করে থাকেন। ১৯৯১ সালে জাপানে অনুষ্ঠিত বিশ্ব টেবিল টেনিস প্রতিযোগিতায় দুই কোরিয়া মিলে একটি একক টিম পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিলে প্রথমবারের মতো গ্যালারিতে এই পতাকা প্রদর্শিত হয়।
দক্ষিণ কোরিয়ার পিয়ংচ্যাং শহরে আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি শীতকালীন অলিম্পিক শুরু হবে এবং তা চলবে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

You Might Also Like