নিউজিল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে আফগানিস্তানের ইতিহাস

স্বাগতিক আর শক্তির বিচারে আফগানিস্তান ও নিউজিল্যান্ড যুব দলের মধ্যে যোজন-যোজন পার্থক্য রয়েছে। কিন্তু সব হিসেব পাল্টে দিয়ে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডকে ২০২ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে প্রথমবারের মতো অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠেছে আফগানিস্তান যুবারা।

ক্রাইস্টচার্চে আজ কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হয় আফগানিস্তান। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আজ টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন আফগানিস্তান অধিনায়ক নাভিদ উল হক। আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ৩০৯ রানে বড় সংগ্রহ পায় আফগানরা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে মুজিব-কায়েস আহমেদের দাপুটে বোলিংয়ে ২৮.১ ওভারে ১০৭ রান তুলতেই অলআউট নিউজিল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

৩১০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দুই স্পিনার মুজিব ও কায়েস আহমেদের ঘূর্নি বোলিং পথ হারায় স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। স্বাগতিকদের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৮ রান করতে পেরেছেন কার্টনি ক্লার্ক। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩১ রান করেন ডেল ফিলিপস। এছাড়া অ্যালেন ও ম্যাক্স চু সমান ১৩ রান করে করেন। বাকিদের মধ্যে আর কেউ দুই অঙ্কের কোটা ছাড়াতে না পারায় দলীয় ১০৭ রানেই থামতে হয়েছে কিউই যুবাদের।

আফগানিস্তানের হয়ে মুজিব ও কায়েস আহমেদ সমান ৪টি করে উইকেট নেন। এছাড়া অধিনায়ক নাভিদ উল হক ১টি উইকেট নেন।

এর আগে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নামা আফগানিস্তান বড় সংগ্রহ পেলেও সেঞ্চুরি পাননি কেউ। তবে চার ফিফটিতে ভর করে লড়াকু পুঁজি পায় আফগানিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দল। দলটির হয়ে ওপেনার রহমানুল্লাহ গুরবাজ ৬৯ রান করেন। আরেক ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান ৬৮ রান করেন। ৬৭ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন বাহির শাহ। শেষদিকে নেমে ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ২৪ বলে ৬৬ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেন আজমতউল্লাহ ওমারজাই। শেষপর্যন্ত ৬ উইকেট হারিয়ে ৩০৯ রানের বড় সংগ্রহ পায় আফগান যুবারা।

সেমিফাইনালের মঞ্চে একই ভেন্যু ক্রাইস্টচার্চে শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে আফগানিস্তান যুবারা।

You Might Also Like