ভোলায় শহর রক্ষা বাঁধ ভেঙে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত

মেঘনার অতিরিক্ত জোয়ারের চাপে ভেঙে গেছে ভোলা শহর রক্ষা বাঁধ । সোমবার বিকেল ৫টায় ভোলা শহর রক্ষা বাঁধ ভেঙে মঙ্গলবার সকালে ধনিয়া ইউনিয়নে পানি প্রবেশ করছে। শহরতলীর নাছির মাঝি এলাকায় বাঁধের ১০ ফুট অংশ ভেঙে পানি প্রবেশ করেছে বলে স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে।

তীব্র স্রোতে প্রবেশ করা পানিতে তলিয়ে গেছে ধনিয়া ইউনিয়নের ৯টি গ্রাম। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে কয়েক শত পরিবার। জরুরি ভিত্তিতে বাঁধের ভাঙা অংশ মেরামত করা না হলে ধনিয়া ইউনিয়ন ছাপিয়ে পানিতে ভোলা শহর প্লাবিত হওয়ার আশংকা রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, সোমবার  দুপুরে বাঁধে ফাটল দেখা দিলে এলাকাবাসী পানি উন্নয়ন বোর্ডকে জানায়। কিন্তু পাউবো কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় সোমবার বিকেলে বাঁধ ভেঙে গিয়ে পার্শ্ববর্তী ধনিয়া ইউনিয়নে মঙ্গলবার সকাল থেকে পানি প্রবেশ করছে।

ধনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন জানান, দুপুরের দিকে বাঁধে ফাটল দেখা দিলে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে জানাই । কিন্তু তারা কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় বিকেলে বাঁধের বিশাল অংশ ভেঙে এলাকায় পানি প্রবেশ করে। ভোলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল হেকিম বলেন, জোয়ারের পানি কমলে বাঁধ মেরামত করা হবে।

অন্যদিকে, জোয়ারের পানিতে প্লাবিত ভোলার ৩টি উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের লাখো মানুষের যেন চরম মানবিক বিপর্যয় চলছে। অস্বাভাবিক জোয়ারে মঙ্গলবার ৪র্থ দিনের মত প্লাবিত হয়েছে ওই সব ইউনিয়নের অন্তত ৫০টি গ্রাম। ঘর-ভিটা রাস্তা-ঘাট, পুকুর, ঘের ও ফসলি জমি তলিয়ে গেছে ৩/৪ফুট পানির নিচে। এতে পানিবন্দি হয়ে চরম দুর্ভোগে পড়েছে লাখো মানুষ।

You Might Also Like