ইয়েমেন যুদ্ধ: যে ক্ষতি হয়েছে সৌদি আরবের

ইয়েমেনের জনপ্রিয় হুথি আনসারুল্লাহ যোদ্ধা ও তাদের অনুগত সেনাদের হাতে ২০১৭ সালে সৌদি আরবের ৩৯৯ সেনা নিহত হয়েছে। পাশাপাশি সৌদি সমর্থিত ভাড়াটে সন্ত্রাসী মারা গেছে ৮৯৪ জন।

ইয়েমেনের যৌথ কমান্ড বুধবার এক বিবৃতিতে ঘোষণা করেছে, দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় সীমান্ত এলাকায় সৌদি আরবের এসব সেনা নিহত হয়েছে। এছাড়া, পলাতক প্রেসিডেন্ট আব্দ রাব্বু মানসুর হাদির অনুগত সৌদি ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা মারা গেছে ইয়েমেনের বিভিন্ন অঞ্চলে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত বছরে ইয়েমেনের সেনা ও তাদের মিত্ররা আটটি এম-১ আব্রামস মেইন ব্যাটল ট্যাংক, ১৯৬টি সাঁজোয়া যান, ৩১টি ট্যাংক এবং ১,৩৩৭টি সামরিক যান ধ্বংস করেছে। ইয়েমেনের হুথি যোদ্ধাদের অনুগত নৌবাহিনীও দুটি গানবোট, চারটি যুদ্ধজাহাজ, একটি গোয়েন্দা সাবমেরিন ও একটি ফ্রিগেটে হামলা করেছে।
অন্যদিকে, দেশের বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনী ও হুথি যোদ্ধারা দুটি জেনারেল ডায়নামিক্স এফ-১৬ ফ্যালকন যুদ্ধবিমান, একটি ম্যাকডুনেল ডুগলাস এফ-১৫ ঈগল যুদ্ধবিমান, দুটি বোয়িং এএইচ-৬৪ অ্যাপচি অ্যাটাক হেলিকপ্টার, একটি সিকোরস্কি ইউএইচ-৬০ ব্ল্যাক হক হেলিকপ্টার ও ১৯টি ড্রোন ভূপাতিত করেছে।

সৌদি আগ্রাসনের জবাবে ইয়েমেনের হুথি যোদ্ধা ও তাদের অনুগত সেনারা ২০১৭ সালে মোট ৪৫টি ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে সৌদি আরবের ভেতরে হামলা চালিয়েছে। এসব ক্ষেপণাস্ত্র দেশীয়ভাবে তৈরি। এর মধ্যে কঠিন জ্বালানি চালিত তিনটি এবং একটি স্কাড-টাইপ বোরকান-১, তিনটি বোরকান-২ এবং তিনটি দীর্ঘপাল্লার বোরকান এইচ-২ ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে সৌদি সেনা ও সৌদি সমর্থিত সন্ত্রাসীদের অবস্থানে হামলা চালানো হয়।

You Might Also Like