৩৮ হাজার আফ্রিকান অভিবাসী বহিষ্কার করবে ইসরাইল

আফ্রিকার বিভিন্ন দেশ থেকে ইহুদিবাদী ইসরাইলে আসা হাজার হাজার অভিবাসীকে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে। ইসরাইল সতর্ক করে বলেছে, যারা ইসরাইল ছাড়বে না তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হবে।

গতকাল (বুধবার) ইসরাইলের যুদ্ধবাজ প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু মন্ত্রসিভার বৈঠকে বলেছেন, “আফ্রিকান অভিবাসী বহিষ্কারের পরিকল্পনা বাস্তবায়নাধীন রয়েছে।” এই পরিকল্পনার আওতায় ইসরাইল ৩৮ হাজার অভিবাসীকে বের করে দেবে। এসব অভিবাসীর বেশিরভাগই এসেছে সুদান ও ইরিত্রিয়া থেকে। ইসরাইলের ইহুদিবাদী সরকার বলছে, যারা অবৈধভাবে ইসরাইলে ঢুকেছে তারা আগামী মার্চের মধ্যে চলে না গেলে তাদেরকে আটক করা হবে। অবশ্য, এর আগে বহু মানুষকে আটক করেছে তেল আবিব।আফ্রিকার বিভিন্ন দেশ থেকে ইহুদিবাদী ইসরাইলে আসা হাজার হাজার অভিবাসীকে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে। ইসরাইল সতর্ক করে বলেছে, যারা ইসরাইল ছাড়বে না তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হবে।

গতকাল (বুধবার) ইসরাইলের যুদ্ধবাজ প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু মন্ত্রসিভার বৈঠকে বলেছেন, “আফ্রিকান অভিবাসী বহিষ্কারের পরিকল্পনা বাস্তবায়নাধীন রয়েছে।” এই পরিকল্পনার আওতায় ইসরাইল ৩৮ হাজার অভিবাসীকে বের করে দেবে। এসব অভিবাসীর বেশিরভাগই এসেছে সুদান ও ইরিত্রিয়া থেকে। ইসরাইলের ইহুদিবাদী সরকার বলছে, যারা অবৈধভাবে ইসরাইলে ঢুকেছে তারা আগামী মার্চের মধ্যে চলে না গেলে তাদেরকে আটক করা হবে। অবশ্য, এর আগে বহু মানুষকে আটক করেছে তেল আবিব।
সুদান ও ইরিত্রিয়ার যেসব নাগরিক ইসরাইলে অভিবাসী হয়েছে তাদেরকে রুয়ান্ডা ও উগান্ডায় পাঠানো হবে কারণ তাদেরকে নিজেদের দেশে ফেরত পাঠালে বিপদের মুখে পড়তে পারে। তবে মানবাধিকার কর্মীরা ইসরাইলের এ সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছে। তারা বলছে, ইচ্ছার বিরুদ্ধে ভিন্ন দেশের কাছে ইসরাইল এসব মানুষকে বিক্রির চেষ্টা করছে।

You Might Also Like