২ দিনের অপেক্ষায়ও সৌদি বাদশার দেখা পাননি নওয়াজ

পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ দুই দিন ধরে সৌদি আরবে অপেক্ষা করে অজ্ঞাত কারণে বাদশা সালমান ও যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের দেখা পাননি।

আগে থেকেই তাদের মধ্যে বৈঠকের সূচি নির্ধারণ করা থাকলেও সৌদি আরবে অপেক্ষায় দিন পার করছেন নওয়াজ। মঙ্গলবার নওয়াজের দেশে ফেরার কথা। শেষ দিনে তিনি যুবরাজের সাক্ষাৎ পেতেও পারেন। তবে এ বিষয়ে নিশ্চয়তা নেই।

নওয়াজ শরিফ কারো সাক্ষাৎ না পেলেও তার ছোট ভাই পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ সোমবার যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। জেরুজালেম ইস্যুতে গত মাসে তুরস্কে অনুষ্ঠিত ইসলামি সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) শীর্ষ সম্মেলনে সৌদি আরবের অনুপস্থিত থাকার বিষয়টি নিয়ে যুবরাজের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

শরিফ পরিবারের এক ঘনিষ্ট ব্যক্তি ডন নিউজকে জানিয়েছে, সোমবার মিয়া সাহেব (নওয়াজ) ও ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের মধ্যে বৈঠক নির্ধারিত থাকলেও অজানা কারণে তা হয়নি। এখন দেখার বিষয় মঙ্গলবার তাদের মধ্যে বৈঠক হয় কিনা। নওয়াজের সঙ্গে সৌদি নেতাদের বৈঠক বিলম্বিত হওয়ায় তিনি বিস্ময় প্রকাশ করেছেন।

শরিফ ভাইদের আকস্মিক সৌদি আরব সফর নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় পাঞ্জাব প্রাদেশিক সরকার কারণ ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করেছে। তারা জানিয়েছে, আল কুদস (জেরুজালেম) ইস্যুতে তুরস্কের সম্মেলনে সৌদি আরবের অনুপস্থিতি নিয়ে যুবরাজের সঙ্গে কথা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের। এ ছাড়া সরকারি সূত্র থেকে জানা গেছে, সৌদি আরবের গোয়েন্দাপ্রধানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন শাহবাজ শরিফ।

গ্রেপ্তার হওয়া সৌদি রাজপুত্ররা এবং তাদের সঙ্গে শাহবাজ শরিফের ঘনিষ্টতা নিয়ে যুবরাজের সঙ্গে কথা হয়েছে কিনা, জানতে চাইলে পাঞ্জাব প্রাদেশিক সরকারের মুখপাত্র মালিক মুহাম্মদ আহমদ বলেন, ‘এটি ভিত্তিহীন অপপ্রচার।’

এদিকে, দুর্নীতির অভিযোগে নাস্তানাবুঁদ শরিফ পরিবার সৌদি আরবকে ব্যবহার করে কোনো সুবিধা আদায় করতে চাইছে কিনা, তা নিয়ে পাকিস্তানের রাজনীতিতে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। দাতা দেশ হিসেবে পাকিস্তানের রাজনীতিতে সৌদি আরবের প্রভাব রয়েছে। তবে এ ধরনের গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়েছেন মালিক মোহাম্মদ আহমদ।

You Might Also Like