ভারতে জাল পাসপোর্ট চক্রের ৫ বাংলাদেশি সদস্য আটক

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ থেকে জাল পাসপোর্ট চক্রের সাত সদস্যকে গ্রেফতার করেছে স্থানীয় পুলিশ। এদের মধ্যে পাঁচ জন বাংলাদেশের নাগরিক রয়েছে। শনিবার তাদের আটক করা হয়।

মুর্শিদাবাদ পুলিশ জানায়, লালগোলা থানার চুনাখালি এলাকায় জাল পাসপোর্ট তৈরির চক্রটির সন্ধান পায়। পরে অভিযান চালিয়ে জাল নথি ও পাসপোর্টসহ ৭ জনকে আটক কারা হয়।

মুর্শিদাবাদ পুলিশ জানিয়েছে, জাল নথি বানিয়ে ভুয়া ঠিকানা দিয়ে বাংলাদেশের নাগরিকদের ভারতীয় পাসপোর্ট পাইয়ে দিত এই চক্রটি। এর সাথে অন্য কারা জড়িত রয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জেলার পুলিশের সুপারিন্টেডেন্ট হুমায়ুন কবীর বলেছেন, রেশন কার্ড ও ভোটার পরিচয়পত্র তৈরি পর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলা হত। পরে ভারতের কোনও গ্রামের ঠিকানা দিয়ে নাম বদল করে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করা হত।

হুমায়ুন কবীর আরো জানিয়েছেন, সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশের নাগরিকদের অবৈধভাবে ভারতে নিয়ে আসা হত। তারপর চলত জাল পাসপোর্ট তৈরির প্রক্রিয়া। এই প্রক্রিয়ায় পাসপোর্ট তৈরি করে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে পাঠিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করত চক্রটি।

এদিকে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা তথ্য বলছে, শুধু মুর্শিদাবাদে নয়, উত্তর চব্বিশ পরগণা সহ ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের অনেক জেলায় জাল নথি ও পাসপোর্ট  তৈরির বেশ কয়েকটি চক্র সক্রিয় রয়েছে।

চক্রটি বিএসএফ’র নজর এড়িয়ে ভারতে লোক নিয়ে আসার কাজ করে। এরপর কারও দায়িত্ব থাকে ভারতে প্রবেশের পরে গোপন  ডেরাগুলোতে বাংলাদেশের নাগরিকদের লুকিয়ে রাখার। এসব কাজের জন্য তাদের কাছ থেকে আলাদাভাবে টাকা নেয়ার হয়। এছাড়াও সব নথি তৈরি করিয়ে পাসপোর্ট হাতে তুলে দেওয়ার জন্য প্যাকেজও পাওয়া যায়। তবে কখনই ক্রেতাদের সামনে আসেন না তারা। পুরো লেনদেন হয় দালালদের মাধ্যমে। সূত্র: বিবিসি

You Might Also Like