আমিরাতে ‘অবরুদ্ধ’ মিশরের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী

মিশরের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী আহমেদ শফিক জানিয়েছেন, তাকে সংযুক্ত আরব আমিরাত ছাড়ার অনুমতি দেওয়া হবে না।

২০১২ সালে মিশরের ইতিহাসে প্রথম গণতান্ত্রিক নির্বাচনে মোহাম্মদ মুরসির কাছে পরাজিত হওয়ার পর সংযুক্ত আরব আমিরাতে বসবাস করছেন আহমেদ শফিক। ২০১৮ সালে অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ক্ষমতাসীন স্বৈরশাসক আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসির বিরুদ্ধে বুধবার প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দেওয়ার পর তাকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে ‘অবরুদ্ধ’ করার তথ্য প্রকাশিত হলো।

আলজাজিরাকে দেওয়া বিশেষ ভিডিও সাক্ষাৎকারে আহমেদ শফিক বলেছেন, তিনি জানেন না কেন তার বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। তিনি বলেছেন, ‘আমাকে সংযুক্ত আরব আমিরাত ত্যাগে মানা করা হয়েছে শুনে আমি বিস্মিত। তবে কী কারণে তা করা হয়েছে, আমি জানি না এবং জানতেও চাই না।’

বুধবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণায় আহমেদ শফিক বলেন, ‘আমি আবার মিশরের নেতৃত্ব দিতে চাই।’ তিনি আরো বলেন, আমি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছি এবং আগামী কয়েক দিনের মধ্যে মিশরে ফেরার আগে নির্বাচনী ক্যাম্পেইন নিয়ে পরিকল্পনা শুরু করেছি।’

ভিডিও সাক্ষাৎকারে তাকে থাকতে দেওয়ার জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি, তবে তার বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার কথা শুনে অসন্তোষও প্রকাশ করেছেন। সংযুক্ত আরব আমিরাতের উদ্দেশে তিনি বলেছেন, ‘আমাকে বাধা দিয়ে সাংবিধানিক প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ থেকে বিরত রাখার মাধ্যমে মিশরের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে যেকোনো হস্তক্ষেপ প্রত্যাখ্যান করি আমি।’

তথ্যসূত্র : আলজাজিরা অনলাইন

You Might Also Like