‘পদ্মাবতী’ নিষিদ্ধের আবেদন তৃতীয়বারের মতো নাকচ

পদ্মাবতী সিনেমা নিয়ে বিতর্ক এখন তুঙ্গে। এমতাবস্থায় ভারতে সিনেমাটির মুক্তির দিন বাধ্য হয়ে পিছিয়েছেন নির্মাতারা। তবে ব্রিটেনে ১ ডিসেম্বর সিনেমাটি মুক্তির জন্য ছাড়পত্র দেয় দেশটির সেন্সর বোর্ড।

পরবর্তীতে পদ্মাবতী সিনেমার ওপর নিষেধাজ্ঞার দাবিতে নতুনভাবে আবেদন করা হয়। এই আবেদনে বিদেশে সিনেমা মুক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞার দাবি জানানো হয়। এছাড়া আইনজীবী এমএল শর্মা সিবিআই পরিচালকের কাছে সঞ্জয় লীলা বানসালি ও অন্যান্যদের বিরুদ্ধে মানহানি ও সিনেমা আইন অমান্য করায় মামলার আবেদন করেন।

তবে পদ্মাবতী নিষিদ্ধের দাবিতে সুপ্রীম কোর্টে করা আবেদন ‍নাকচ করা হয়েছে। মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রার নেতৃত্বে একটি বেঞ্চ এ রায় দেন। ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানিয়েছে।

এ নিয়ে গত এক মাসে তৃতীয়বারের মতো পদ্মাবতী সিনেমার ওপর নিষেধাজ্ঞার আবেদন নাচক করলেন আদালত।

অনেকদিন ধরেই সঞ্জয় লীলা বানসালি পরিচালিত সিনেমাটি নিয়ে আপত্তি জানিয়ে আসছিল রাজপুত করনি সেনা। সিনেমাটি নিয়ে বিতর্ক শুরু হয় যখন করনি সেনা জানতে পারে, রানি পদ্মিনী ও আলাউদ্দিন খিলজির একটি রোমান্টিক দৃশ্য দেখানো হয়েছে। যদিও পরিচালক, অভিনয়শিল্পী ও পদ্মাবতী টিমের অন্যান্যরা এ ধরণের গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়েছেন। এছাড়া বেশ কয়েকজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব সিনেমাটি মুক্তির বিরোধীতা করেছেন। এদিকে রাজস্থান, গুজরাট ও মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, সেন্সরবোর্ড ছাড়পত্র দিলেও তারা সিনেমাটি প্রদর্শিত হতে দেবেন না।

সিনেমাটি প্রদর্শিত হবে কিনা তা নির্ধারণের ক্ষমতা সেন্সর বোর্ডের জানিয়ে আজ বিচারক বলেছেন, ‘বিষয়টি এখন সিবিএফসিতে (সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশন) থাকা অবস্থায় দায়িত্বশীল পদে থাকা কোনো ব্যক্তি কীভাবে মন্তব্য করেন, সেন্সর ছাড়পত্র দেবে কিনা? এতে সেন্সর বোর্ডের সিদ্ধান্তে পক্ষপাত তৈরি হতে পারে।’

পদ্মাবতী সিনেমায় রানি পদ্মিনি চরিত্রে অভিনয় করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন। এছাড়া আলাউদ্দিন খিলজি ও রাজা রাওয়াল রতন সিংয়ের ভূমিকায় দেখা যাবে রণবীর সিং ও শহিদ কাপুরকে।

You Might Also Like