সিলভেস্টার স্ট্যালনের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা সিলভেস্টার স্ট্যালন। রকি সিনেমাখ্যাত এ অভিনেতার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করা হয়েছিল। পুলিশের কাছ থেকে প্রকাশিত একটি রিপোর্টের ভিত্তিতে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এমনটাই জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল। যদিও বিষয়টি সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন এ অভিনেতা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ অভিনেতার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেছিলেন এক নারী। লাস ভেগাসে আশির দশকের শেষের দিকে ঘটনাটি ঘটে। তখন এই নারীর বয়স ছিল ১৬ বছর। ঘটনার সময় অভার দ্য টপ সিনেমার শুটিং করছিলেন সিলভেস্টার স্ট্যালন।

এ প্রসঙ্গে স্ট্যালনের পক্ষ থকে তার মুখপাত্র মিশেল বেগা বলেন, ‘এটি খুবই হাস্যকর, নিশ্চিতভাবে বানোয়াট গল্প। আজ (বুধবার) এটি প্রকাশের আগে বিষয়টি কেউ জানত না, এমনকি স্ট্যালনও নয়। এই ব্যাপারে কোনো প্রশাসন অথবা ব্যক্তি তার সঙ্গে যোগাযোগও করেননি।’

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এই নারী জানান, র‌্যাম্বো অভিনেতার সঙ্গে তার পরিচয় হয় লাস ভেগাসের হিলটন হোটেলে। পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে ১০দিন সেখানে ছিলেন তিনি। অভিনেতা ডেভিড মেন্ডেলহ্যালের স্ট্যালনের সঙ্গে তার পরিচয় করিয়ে দেন। ডেভিড অভার দ্য টপ সিনেমায় স্ট্যালনের ছেলের চরিত্রে অভিনয় করেন।

পুলিশের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ১৯৮৬ সালের জুলাইয়ে এই নারী স্ট্যালন ও তার দেহরক্ষী মাইকেল ডি লুকার’র সঙ্গে যৌনমিলনে ‘বাধ্য হয়েছিলেন’। ওই সময় দ্য এক্সপেনডেবলস থ্রি অভিনেতার বয়স ছিল ৪০ বছর এবং তার দেহরক্ষীর বয়স ছিল ২৭ বছর। এই নারী দাবি করেছেন, স্ট্যালন তার সঙ্গে যৌনমিলন করেন এবং পরবর্তীতে দেহরক্ষীকে তাদের সঙ্গে যোগ দিতে বলেন। এতে তিনি অস্বস্তিবোধ করলেও বাধ্য হয়েছেন। বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য স্ট্যালন ও তার দেহরক্ষী তাকে ভয় দেখান বলে জানান অভিযোগকারী।

বিষয়টি নিয়ে তখন কেন কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি, এমন প্রশ্নের উত্তরে পুলিশ সংবাদমাধ্যমে জানান, ওই নারী তখন অপমান, লজ্জা এবং ভয় পেয়েছিলেন।

লাস ভেগাস মেট্রো পুলিশ ডিপার্টমেন্টের অবসরপ্রাপ্ত ডিটেকটিভ সার্জেন্ট জন সামোলোভিচ নিশ্চিত করেছেন যে, পুলিশের প্রকাশিত রিপোর্টটি আসল রিপোর্টের কপি। জন সামোলোভিচ ওই সময় যৌন হয়রানি বিভাগের প্রধান ছিলেন।

You Might Also Like