আইন কমিশনের ড্রাইভারের কোটি টাকার ব্যাংক ব্যালেন্স

গাড়ির ড্রাইভার থেকে কোটি টাকার ব্যাংক ব্যালেন্সের মালিক হয়েছেন এসএম শামছুল আলম। আইন কমিশনের গাড়ির ড্রাইভার হওয়ার বদৌলতে এ ভাগ্য খুলেছে তার। তিনি প্রতারণা ও দুর্নীতির মাধ্যমে এ সম্পদ অর্জন করেছেন বলে দুদকের অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়েছে।

এসব অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তার তথ্য গোপন করার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা করারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশের দুর্নীতি দমন কমিশন। সম্প্রতি তার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়েরের জন্য অনুমোদন দিয়েছে কমিশন। এদিকে এসব অভিযোগে ওই ড্রইভারকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করেছে প্রতিষ্ঠানটি। দুদক সূত্র শীর্ষ নিউজকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

সূত্রটি জানায়, এসএম শামছুল আলম বাংলাদেশ আইন কমিশনের (বিচার ও প্রশাসন ইনিস্টিউট ভবন) এর গাড়ির ড্রাইভার (চালক) থাকা অবস্থায় প্রতারণার মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ সম্পদ অর্জন করেছেন বলে দুদকে অভিযোগ আসে। দুদক অভিযোগটি খতিয়ে দেখে প্রাথমিক অনুসন্ধানের পর তার সম্পদ বিবরণীর দাখিলের জন্য চিঠি দিলে সে তার সম্পদ বিবরণী দাখিল করে। কিন্তু সেই দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে তার ব্যাংক হিসাবে গচ্ছিত ৭১ লাখ ১৮ হাজার ১৫০ টাকা গোপন করে। এবং সেই টাকা স্থানান্তর ও রুপান্তরের মাধ্যমে অন্যত্র হস্তান্তর করেছে বলে দুদকের অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়।

তাই এসব অবৈধভাবে অর্জিত টাকা স্থানান্তর ও হস্তান্তর করা ও তথ্য গোপন করার অভিযোগে মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ২০১২ এর ৪(২)(৩) ধারায় তার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের অনুমোদন দেয় কমিশন। শিগগিরই তার বিরুদ্ধে অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা ও দুদকের উপ-পরিচালক শেখ ফাইয়াজ আলম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করবেন বলে জানায় সূত্রটি।

You Might Also Like