বাজিতে জিতে শাহরুখ আজ বলিউড বাদশা

‘দিওয়ানা’ সিনেমার মাত্র অর্ধেক অংশে উপস্থিত ছিলেন। এটিই ছিল শাহরুখ খানের প্রথম সিনেমা। ১৯৯২ সালে মুক্তি পায় এটি। কিন্তু এই অভিনেতাই পরবর্তীতে সিনেমায় তৈরি করেছেন নিজস্ব ভঙ্গিমা এবং আলাদা আবেদন। ফলে শুধু এশিয়া মহাদেশ নয়, পৃথিবীব্যাপী শাহরুখ খান এক পরিচিত নাম। এ পর্যন্ত প্রায় আশিটির অধিক সিনেমায় অভিনয় করা এই অভিনেতা শুধু পদ্মশ্রী নয়, অভিনয়ের কারণে জিতেছেন দেশ-বিদেশের একাধিক পুরস্কার। ১৪ বার জিতেছেন ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড, যা সাম্প্রতিক সময়ে কোনো ভারতীয় অভিনয়শিল্পীর জন্য বিরাট গৌরবের। অভিনয়ে নিজস্ব ঢং এবং উপস্থাপন শৈলী তৈরি করার কারণে বর্তমানে শাহরুখ খান পৌঁছে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। দর্শকের সারিতে শাহরুখ উন্মাদনা সবসময়ই যে কোনো অভিনয়শিল্পীকে আলোড়িত করে।

ভারতের দিল্লীতে ১৯৬৫ সালের আজকের এই দিনে জন্মগ্রহণ করেন শাহরুখ। পিতার নাম তাজ মোহাম্মদ খান, যিনি পাঠান বংশোদ্ভুত। দাদা ছিলেন আফগানিস্তানের নাগরিক। মায়ের নাম লতিফ ফাতিমা। মা-বাবা বাদে ছোটবেলায় যাকে কাছে পেয়েছেন তিনি হলেন ‘শেহনাজ’; শাহরুখের বড় বোন। জন্মের পরই বাবা তার নাম রেখেছিলেন শাহরুখ খান। শাহরুখ শব্দের অর্থ ‘রাজ মুখ’।
সিনেমায় আসার আগে অভিনয়ের জন্য জীবনে প্রচুর সংগ্রাম করেছেন শাহরুখ। ১৯৮৮ সালে ‘ফৌজি’ টেলিভিশন সিরিয়ালে কমান্ডো অভিমন্যু রাই চরিত্রের মাধ্যমে অভিনেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। এরপর ১৯৮৯ সালে ‘সার্কাস’ সিরিয়ালে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেন। কিন্তু এসবের মধ্যে কোথাও সফলতা পাননি। এর বেশ কিছুদিন পর মা-বাবা মারা গেলে নতুন জীবন শুরু করার লক্ষ্যে নয়াদিল্লি ছেড়ে মুম্বাই পাড়ি জমান তিনি। তবে প্রথম সিনেমা দিয়েও নাম করতে পারেননি শাহরুখ। ১৯৯২ সালেই অভিনয় করেছিলেন চারটি সিনেমায়। কোনোটিই ব্যবসায়ীকভাবে সফলতা পায়নি। তবে পরের বছরই ‘বাজিগর’ সিনেমার মাধ্যমে নিজেকে নতুনভাবে চিনিয়েছেন। এর আগে সবকয়টি সিনেমায় ইতিবাচক চরিত্রে অভিনয় করলেও ‘বাজিগর’-এ অভিনয় করেছিলেন নেতিবাচক চরিত্রে। আর তাতেই মেলে সাফল্য, এটি ছিল শাহরুখ এবং কাজল উভয়ের জীবনের প্রথম সুপারহিট সিনেমা। বাজিগর’র কারণে প্রথমবারের মতো ফিল্মফেয়ার আসরের সেরা অভিনেতার পুরস্কার জিতেছিলেন শাহরুখ। বলা যায়, দিল্লি ছাড়ার সময় জীবন নিয়ে যে বাজি তিনি ধরেছিলেন এই এক ছবিতেই সেই বাজি জিতে নেন তিনি।
এছাড়া স্টেজ পারফর্মার হিসেবেও শাহরুখ খানের জুড়ি নেই। যে কারণে বিশ্বের বড় বড় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান, বিশেষ করে এশিয়ার সব বড় বড় অনুষ্ঠানে শাহরুখকে সবচেয়ে বেশি প্রত্যাশা করেন আয়োজকরা। এ পর্যন্ত শাহরুখ খান একাধিক ইন্টারন্যাশনাল অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছেন। ১৯৯৭ সালে মালেয়াশিয়ার টাইম কনসার্ট, লাইভ ফ্রম মালেয়াশিয়া অনুষ্ঠানে তিনি কারিশমা কাপুরের সাথে স্টেজ পারফর্মার হিসেবে দাওয়াত পান। যেটি ছিল শাহরুখের ক্যারিয়ারের অন্যতম বড় অনুষ্ঠান। এই অনুষ্ঠানটি ছিল মালেয়াশিয়ার ইতিহাসে সবচেয়ে সেরা অনুষ্ঠান। ২০১০ সালে আর্মি স্টেডিয়ামে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান আকর্ষণ হিসেবে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আসেন শাহরুখ খান।

এতকিছুর পাশাপাশি একজন সফল ব্যবসায়ী হিসেবেও নিজেকে প্রমাণ করেছেন শাহরুখ খান । ব্যবসায়ী হিসেবে ইন্ডিয়ার বড় ঘরোয়া ক্রিকেট আসর আইপিএল-এর অন্যতম প্রধান দল ‘কলকাতা নাইট রাইডারস’-এর মালিক হিসেবে তিনি বেশ পরিচিত। ২০০৮ সালে জুহি চাউলার সাথে ৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার শেয়ারে দলটি কিনলেও ২০০৯ সালে দলটির সম্পূর্ণ মালিকানা কিনে নেন শাহরুখ। এই দলের মাধ্যমে বড় বড় সাফল্যের মুখ দেখেছেন শাহরুখ। তবে শুধু আইপিএল নয়, সিনেমার প্রযোজক হিসেবেও শাহরুখ সফলতা পেয়েছেন। ১৯৯৯ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত ‘ড্রিমজ’ প্রডাকশনের কো প্রডিউসার হিসেবে কিছুকাল অতিক্রম করে ‘রেড চিলি এন্টারটেইনমেন্ট’ নামে স্ত্রী গৌরি খানকে নিয়ে সিনেমার একজন পূর্ণ প্রযোজক হিসেবে যাত্রা শুরু করেন। সিনেমার প্রযোজনার পাশাপাশি টেলিভিশনের বিভিন্ন অনুষ্ঠান প্রযোজনাতেও শাহরুখ খানকে দেখা যায়।
সব মিলিয়ে শুধু অভিনয়েই নয়, শাহরুখ খান নিজেকে প্রমাণ করেছেন অনেকভাবে। শাহরুখ অভিনীত সর্বশেষ সিনেমার নাম ‘জব হ্যারি মেট সেজাল’। রোমান্টিক ঘরানার এই সিনেমাটিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেন অনুশকা শর্মা। শুধু রোমান্টিক নায়ক হিসেবে নয়, অ্যাকশন, কমেডি সব চরিত্রেই সমান দক্ষতা দেখিয়েছেন শাহরুখ। এখনও তিনি মূল নায়কের চরিত্রে অভিনয় করে যাচ্ছেন তরুণদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে। তার নায়িকা হিসেবে প্রযোজকরা পছন্দ করছেন এ সময়ের নবাগতাদের। তাতেও আপত্তি নেই এই নায়কের। কারণ প্রযোজকরা ভালো করেই জানেন শাহরুখকেই দেখতে আসবেন দর্শক। তার নাম সিনেমাপ্রেমীদের মনে এভাবেই গেঁথে আছে, যেভাবে রয়েছে কিংবদন্তি অভিনেতা দিলীপ কুমার, অমিতাভ বচ্চনের নাম। সুতরাং সেই তালিকা করলে তাকে অনায়াসে হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির কিং তো বলাই যায়। ‘বলিউড বাদশা’ খেতাব তিনি পেয়েছেনও। এবং এই খেতাব শাহরুখ খানকে দিয়েছে স্বয়ং দর্শক।

You Might Also Like