ক্ষমা চাইলেন নওয়াজউদ্দিন

বলিউডের বর্তমান সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী। এ অভিনেতার জীবনী নিয়ে একটি বই লেখেন ঋতুপর্ণা চ্যাটার্জি। বইটি প্রকাশের আগেই এর কিছু অংশ একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয়। এতে নওয়াজউদ্দিনের প্রেমের সম্পর্কের ব্যাপারটি উঠে আসে। এরপরই তা নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। এ অভিনেতার কথিত দুই প্রেমিকা অভিনেত্রী নিহারীকা সিং এবং সুনিতা তাদের সম্পর্কে লেখা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। এছাড়া নিহারীকার সম্মানহানির দায়ে ভারতের ন্যাশনাল কমিশন অব উইমেন-এ অভিযোগ দায়ের হয়।

জীবনীতে উল্লেখ করা ঘটনার মাধ্যমে যারা অনুভূতিতে আঘাত পেয়েছেন শেষ পর্যন্ত তাদের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী। শুধু তাই নয়, এ কারণে তার জীবনীটি প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘোষণাও দিয়েছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে পোস্ট করা এক টুইটে নওয়াজউদ্দিন লেখেন, “আমার ‘অ্যান অরডিনারি লাইফ’ জীবনীগ্রন্থের জন্য যারা আঘাত পেয়েছেন তাদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করছি। আর এ অনুশোচনা থেকে আমার বইটি প্রত্যাহার করে নিচ্ছি।’’

এর আগে তার বইয়ের প্রকাশিত অংশে নওয়াজ জানান, জীবনের প্রথম সুনিতা নামের একটি মেয়ের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান তিনি। তখন মুম্বাইয়ে মঞ্চে কাজ করতেন মেয়েটি। অন্যদিকে সুনিতা গ্র্যাজুয়েট। তাদের মধ্যে সম্পর্ক বেশ ভালোই চলছিল। সুনিতা ছিলেন পাহাড়ি মেয়ে। একদিন তিনি তার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যান। কিন্তু ফিরে এসে নওয়াজের সঙ্গে সকল সম্পর্ক ছিন্ন করেন। নওয়াজ সর্বশেষ যখন তার সঙ্গে যোগাযোগ করেন, তখন সুনিতা জানান, তিনি তার ক্যারিয়ারে মনোযোগী হতে চান। নওয়াজকেও ক্যারিয়ারের প্রতি মনোযোগী হতে বলেন। এরপর ভীষণ হতাশ হয়ে গিয়েছিলেন এ অভিনেতা। পরবর্তীতে আত্মহত্যার কথাও ভেবেছিলেন তিনি।

এরপর অভিনেত্রী নিহারীকা সিংয়ের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী। এ প্রসঙ্গে তার বইতে নওয়াজ লিখেছেন, ‘মিস লাভলি সিনেমার একটি নাচের দৃশ্যের শুটিং চলছিল। তখনই অভিনেত্রী নিহারীকা সিংয়ের মধ্যে কিছুটা পরিবর্তন দেখা দিল। তারপর থেকে সে আমার কাছ থেকে দূরে থাকতে শুরু করে। তার আগে আমার সঙ্গে বন্ধুর মতো আচরণ করত। কথা বলত। এ বিষয়ে একদিন তাকে জিজ্ঞেস করেও উত্তর পেলাম না। এরপর তাকে আমার বাড়িতে মাটন খাওয়ার নিমন্ত্রণ করলাম। সে এল। মাটন খেল। প্রশংসাও করল।’

বইতে তিনি আরো লিখেছেন, ‘এরপর আমাকে মাটন খাওয়ানোর জন্য তার বাড়িতে ডাকল। সেদিন আমি প্রথম নিহারীকার বাড়ি যাই। তখন দরজা বন্ধ ছিল। তা খোলামাত্র দেখে অবাক হলাম। দেখলাম, হাজারটা মোমবাতির আলো। আমি ওকে জড়িয়ে ধরে সোজা শোবার ঘরে নিয়ে চলে গেলাম। সেই থেকে শুরু হলো আমাদের প্রেম। তবে মাত্র দেড় বছর ছিল সেই সম্পর্ক।’

কিন্তু পরবর্তীতে এর প্রতিবাদ করে অভিনেত্রী নিহারীকা সিং জানান, বই বিক্রির জন্য নওয়াজ সবকিছু বাড়িয়ে লিখেছেন। পাশাপাশি সুনিতাও নওয়াজের বইতে তাকে ঘিরে বাড়িয়ে লেখা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন। শুধু তাই নয় এজন্য নিন্দাও প্রকাশ করেছেন তিনি।

You Might Also Like