সপ্তাহে ১২ হাজার রোহিঙ্গা শিশু আসছে

প্রতি সপ্তাহে প্রায় ১২ হাজার রোহিঙ্গা শিশু বাংলাদেশে প্রবেশে করছে। ইতিমধ্যে কক্সবাজারে রোহিঙ্গা আশ্রয় শিবিরে তিন লাখ ৪০ হাজার শিশু অপরিচ্ছন্ন জীবনযাপন করছে। পর্যাপ্ত খাদ্য, নিরাপদ পানি ও স্বাস্থ্যসেবার অভাবের মধ্যেই এসব শিশুকে বাস করতে হচ্ছে।

শুক্রবার জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ এ তথ্য জানিয়েছে।

‘আউটকাস্ট অ্যান্ড ডেসপারেট’ শিরোণামে লেখা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা শিশুরা যে নৃশংসতা দেখে এসেছে, তাতে তারা এখনও মানসিকভাবে বিপর্যস্ত অবস্থায় রয়েছে।

প্রতিবেদনের লেখক সিমন ইনগ্রাম এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ‘এটা স্বল্পমেয়াদী হতে যাচ্ছে না, এটা যে কোনো মুহূর্তেই শেষ হতে যাচ্ছে না।’

তিনি বলেন, ‘ এটা সম্পূর্ণ জটিল যে, সীমান্ত খোলা রাখা, শিশুদের সুরক্ষা দেওয়া এবং যে শিশুরা বাংলাদেশে জন্ম নিচ্ছে তাদের নিবন্ধন করা।’

কক্সবাজারে দুই সপ্তাহ সফর শেষে ইনগ্রাম জানিয়েছেন, নিরাপদ পানি ও টয়লেটের ব্যাপক সংকট রয়েছে।

তিনি বলেন, ‘ বিচারবুদ্ধির দিক থেকে তারা এই স্থানটিকে পৃথিবীর মধ্যে সত্যিকারের নরক বলে দেখলে তাতে বিস্ময়ের কিছুই নেই।’

পাঁচ বছরের নিচে প্রতি পাঁচজনের মধ্যে একজন রোহিঙ্গা শিশু প্রচণ্ড পুষ্টিহীনতা ভুগছে, যাদের চিকিৎসা সহায়তা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, ‘দীর্ঘ মেয়াদে ডায়রিয়া ও কলেরার মতো পানিবাহিত রোগ ছড়িয়ে পড়ার প্রবল আশঙ্কা রয়েছে।’

প্রসঙ্গত, গত ২৫ আগস্ট থেকে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নির্যাতন-নিপীড়ন থেকে বাঁচতে এ পর্যন্ত প্রায় ছয় লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। মিয়ানমারের পক্ষ থেকে এসব রোহিঙ্গাকে ফেরত নেওয়ার কোনো দৃশ্যমান উদ্যোগ পরিলক্ষিত হয়নি।

You Might Also Like