বিদেশে যাওয়ার জন্য অনুমতি চেয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রধান বিচারপতির চিঠি

প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা বিদেশে যাওয়ার জন্য অনুমতি চেয়ে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদকে অবহিত করে একটি চিঠি দিয়েছেন।

১৩ অক্টোবর থেকে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত ছুটি চেয়ে লেখা চিঠিটি আজ মঙ্গলবার বিকেল পৌনে ৪টার দিকে আইন সচিবের দপ্তরে পৌঁছায় বলে আইনমন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে।

এদিকে, প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বিদেশ যাওয়া নিয়ে রাজনীতি না করার আহ্বান জানিয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, প্রধান বিচারপতি অসুস্থ হয়ে চিকিৎসকের কাছে যাচ্ছেন। তিনি চিকিৎসার জন্য বিদেশ যাবেন নিজের ইচ্ছায়।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে ‘ন্যাশনাল অ্যাডভোকেসি মিটিং অন নিউটেশন শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোহাম্মদ নাসিম এ কথা বলেন।

অপরদিকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, প্রধান বিচারপতিকে অসুস্থ বলে যাদের দ্বারা ছুটিতে পাঠাতে বাধ্য করেছেন তারাই একদিন আপনাকে অসুস্থ বলে ছুটিতে পাঠাতে পারেন। তাই স্বাভাবিক পরিস্থিতিকে স্বাভাবিকভাবে চলতে দেন। অস্বাভাবিক পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে কোন দলই লাভবান হবে না।

গয়েশ্বর চন্দ্র আরো বলেন, ৫ জানুয়ারি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে যারা এরশাদকে অসুস্থ বানিয়েছিলেন আজও তারাই প্রধান বিচারপতিকে অসুস্থ বানিয়েছেন।মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘সুশাসন ও নাগরিক অধিকার’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা’র ছুটির প্রসঙ্গে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, গোটা ব্যবস্থাটাই বিচার বিভাগের ওপর নগ্ন হামলা। কারণ ষোড়শ সংশোধনীর রায় ৭ জন একসঙ্গেই ঐক্যমতের ভিত্তিতে স্বাক্ষর করেছেন। তাহলে প্রধান বিচারপতির যদি ছুটি হয়, বাকি ৬ জন ছুটি নেন না কেন?

স্বৈরাচার পতনের আগে যেসব ঘটনা ঘটে এখন তার আলামত চলছে বলেও মন্তব্য করেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

You Might Also Like