সেনা অভিযান বন্ধ করতে হবে : জাতিসংঘ মহাসচিব

অ্যান্টনিও গুতেরেস বলেছেন, মিয়ানমারকে অবশ্যই রাখাইন রাজ্যে সেনা অভিযান বন্ধ করতে হবে। মঙ্গলবার নিউ ইয়র্কে সাধারণ পরিষদের উদ্বোধনী ভাষণে তিনি এ কথা বলেছেন।

রোহিঙ্গাদের দুর্দশার কথা তুলে ধরে গুতেরেস বলেন, এদের পরিচয়ের বিষয়টি দীর্ঘদিন ধরে অমিমাংসিত রয়েছে। এসময় তিনি রাখাইনে অবাধে মানবিক ত্রান প্রবেশের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

১৯৩টি দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের সামনে দেওয়া ভাষণে গুতেরেস উত্তর কোরিয়া ও এর ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি নিয়ে ঘনীভূত সংকট রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় সমাধানের ওপর জোর দেন।

তিনি বলেন, ‘এখন রাষ্ট্রনায়কোচিত আচরণের সময়। আমরা ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে যুদ্ধের পথে হাঁটতে পারি না।’

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার সাবেক প্রধান গুতেরেস শরণার্থী প্রসঙ্গে বলেন, ‘শরণার্থী ও অভিবাসন প্রত্যাশীদের যখন প্রতারিত ও বলির পাঠা হতে দেখি এবং নির্বাচনে সুবিধা অর্জনের জন্য রাজনৈতিক নেতাদের যখন তাদের ব্যবহার করতে দেখি তখন বেদনা অনূভব করি।’

তিনি বলেন, ‘আপনাদের অনেকের মতো আমি নিজে একজন শরণার্থী। তবে কেউ আশা করে না যে আমি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ছিদ্রযুক্ত নৌকায় সাগর পাড়ি কিংবা ট্রাকের পেছনে করে মরুভূমি পাড়ি দিয়ে জন্মভূমির বাইরে চাকরি খুঁজতে যাব। বৈশ্বিক ধনীরা নিরাপদ অভিবাসনকে সীমিত করতে পারেন না।’

গুতেরেস তার ভাষণে জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যুতেও সতর্কবার্তা উচ্চারণ করেছেন। তিনি কার্বন নির্গমন কমাতে বিশ্ব নেতাদের সর্বোচ্চ আকাঙ্খা নিয়ে ২০১৫ সালের প্যারিস জলবায়ু চুক্তি বাস্তবায়নের আহ্বান জানান।

You Might Also Like