ভয়াবহ বন্যাকবলিত টেক্সাস ঘুরে দেখলেন ট্রাম্প

ভয়াবহ বন্যাকবলিত টেক্সাস ঘুরে দেখলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তার স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প।

হারিকেন হার্ভের প্রভাবে নজিরবিহীন বৃষ্টিপাতে প্লাবিত হয়েছে টেক্সাসের বিশাল অঞ্চল, বিশেষ করে হিউস্টন এখন পানির নিচে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও মেলানিয়া মঙ্গলবার আকাশ পথে কর্পাস ক্রিস্টিতে পৌঁছান। শুক্রবার এখানে প্রথম আঘাত হানে হারিকেন হার্ভে। তাদের আগমন উপলক্ষে রাজ্যের গভর্নর গ্রেগ অ্যাবোট বলেছেন, টেক্সাসের মানুষ কী ভয়াবহ চ্যালেঞ্জের মুখে রয়েছে, প্রেসিডেন্ট যেন তা অনুধাবন করেন।

শক্তিশালী ঝড় হার্ভের প্রভাবে অভূতপূর্ব বৃষ্টিপাতে অসংখ্য বসতবাড়ি তালিয়ে যাওয়ায় হাজার হাজার মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রে ঠাঁই নিয়েছে। হিউস্টনের দুটি বাঁধের ওপর দিয়ে বানের জল উপচে পড়ায় সেখানে সীমাহীন দুর্ভোগ নেমে এসেছে।

টেক্সাসের বন্যায় এ পর্যন্ত ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে একই পরিবারের ছয় সদস্য রয়েছে। বানের তোড়ে তাদের বহনকারী গাড়ি ভেসে গিয়ে মারা যান তারা। এ ছাড়া ষাটোর্ধ্ব এক ব্যক্তি সাঁতরে নিরাপদ স্থানে যাওয়ার চেষ্টা করার সময় ডুবে মারা যান।

সরকারি আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, টেক্সাসের সিডার বাইউতে ৫১ দশমিক ৮৮ ইঞ্চি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে, যা যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

উদ্ধারকর্মীরা অন্যান্য দুর্গত এলাকায় পৌঁছানোর চেষ্টা করছে। অনেক মানুষ প্লাবিত এলাকায় আটকা পড়ে আছে।

এদিকে, মঙ্গলবার টেক্সাসে পৌঁছে ট্রাম্প বলেন, ঝড়ের পর কীভাবে মানুষের কাছে পৌঁছাতে হয়, ত্রাণ তৎপরতার মাধ্যমে তিনি সে বিষয়ে নজির স্থাপন করতে চান। তিনি বলেন, ‘যেকোনো সময়ের চেয়ে ভালো কিছু করতে চাই।’

হারিকেন হার্ভে শুক্রবার টেক্সাসে আঘাত হানে এবং এর প্রভাবে এখনো বৃষ্টিপাত চলছে। পরিস্থিতি মোকাবিলা করে প্রাণহানি ও ক্ষয়ক্ষতি কমাতে চেষ্টা করে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

You Might Also Like