ইংলাকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

থাইল্যান্ডের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনাওয়াত্রার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে। শুক্রবার চাল ভর্তুকিতে দুর্নীতির মামলার রায় ঘোষণার দিন সুপ্রিম কোর্টে উপস্থিত না হওয়ায় তার বিরুদ্ধে এ পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

ইংলাকের আইনজীবী আদালতকে জানিয়েছেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাথা ধরার কারণে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন এবং এই কারণে তিনি আদালতে উপস্থিত হতে পারছেন না। একইসঙ্গে তিনি আদালতকে রায় ঘোষণার দিন পেছানোর অনুরোধ করেন।

আদালত জানায়, ‘যেহেতু তিনি কোনো অসুস্থতাজনিত চিকিৎসা সনদ দাখিল করেননি, সেহেতু তার এই দাবি বিশ্বাসযোগ্য নয় এবং তিনি যে অসুস্থতার কথা বলেছেন, সেটি এতো প্রবল নয় যে তিনি আদালত পর্যন্ত আসতে পারবেন না।’

এক বিবৃতি আদালতের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, আদালতের আশঙ্কা ইংলাক হয়তো দেশের বাইরে পালিয়ে যেতে পারেন। এ কারণে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। একইসঙ্গে এর আগে তিনি জামিন বাবদ যে ৯ লাখ মার্কিন ডলার জমা দিয়েছিলেন তা বাজেয়াপ্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

থাইল্যান্ডের ইমিগ্রেশন পুলিশ প্রধান বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, তার বিশ্বাস ইংলাক এখনো দেশের ভেতরেই রয়েছেন। তার দেশত্যাগের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

২০১৪ সালে মে মাসে সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতাচ্যুত হন ইংলাক সিনাওয়াত্রা। সে সময় তার বিরুদ্ধে ভর্তুকির চাল নিয়ে জালিয়াতির অভিযোগ তোলা হয়। শুক্রবার এই মামলার রায় ঘোষণার দিন ছিল। ইংলাকের সমর্থকরা সকালেই আদালত প্রাঙ্গনের সামনে জড়ো হতে শুরু করে । অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে ওই এলাকায় কয়েক হাজার পুলিশ মোতায়েন করেছিল থাই সরকার।

You Might Also Like