ঢাকার সঙ্গে উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের রেল যোগাযোগ বন্ধ

টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলায় পৌলী নদীর ওপর রেলসেতুর অ্যাপ্রোচের মাটি প্রায় ২০ ফুট ধসে পড়েছে। ফলে ঢাকার সঙ্গে উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

বাংলাদেশ সময় ২০ আগষ্ট রোববার সকাল ৬টার দিকে স্থানীয়রা রেলসেতুর অ্যাপ্রোচ থেকে মাটি সরে যেতে দেখেন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁরা স্থানীয় প্রশাসনকে বিষয়টি অবহিত করেন। এ ছাড়া স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে লাল কাপড় টানিয়ে সতর্কসংকেত দেন।

রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী রমজান আলী জানান, তাঁরা ঘটনাস্থলে পরিস্থিতির পর্যবেক্ষণ করছেন। সেখানে মাটি সরে প্রায় ২০ ফুট গভীর ফাঁকা স্থানের সৃষ্টি হয়েছে। খবর পেয়ে ঢাকা থেকে প্রকৌশলীরা রওনা দিয়েছেন। তাঁরা ঘটনাস্থল পর্যবেক্ষণ করে যত দ্রুত সম্ভব ব্যবস্থা নেবেন।

বঙ্গবন্ধু সেতু-ঢাকা মহাসড়কে ফোর লেনের কাজ চলছে জানিয়ে রমজান আলী বলেন, এ কারণে পৌলী রেলসেতুর কাছে ফোর লেন প্রকল্পের সেতু নির্মাণের সময় থেকে সেখানে পানি বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে, যার প্রভাব পড়ছে রেলসেতুর ওপর। এ কারণে মাটি ধসে পড়ার ঘটনা ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

টাঙ্গাইলের ঘারিন্দা রেলস্টেশন মাস্টার জালাল উদ্দিন জানান, সকাল সাড়ে ৫টার দিকে খুলনা থেকে ঢাকাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি যমুনা নদীর ওপর অবস্থিত কালিহাতী উপজেলার পৌলী রেলব্রিজ এলাকা অতিক্রম করার পর পরই পৌলী রেলব্রিজের ৩০ ফুট এলাকাজুড়ে অ্যাপ্রোচ অংশ ধসে পরে। বন্যার পানিতে মাটি নরম হয়ে যাওয়ায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে তাঁর ধারণা।

এর ফলে রেললাইনের নিরাপত্তাজনিত কারণে ঢাকার সঙ্গে উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণাঞ্চলের ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে জানান জালাল উদ্দিন। ঘটনাস্থলে নীলফামারীর চিলাহাটি থেকে ঢাকাগামী নীলফামারী এক্সপ্রেস ট্রেনটি আটকা পড়েছে। এ ছাড়া বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব স্টেশনে ঢাকাগামী রংপুর এক্সপ্রেস, বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম স্টেশনে দিনাজপুর থেকে ঢাকাগামী একতা এক্সপ্রেস এবং ঢাকা থেকে রাজশাহীগামী ধূমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনগুলো জয়দেবপুর রেলস্টেশনে আটকা পড়ে আছে।

You Might Also Like