‘পর্নো সিনেমা নির্মাণ করিনি’- অজয় দেবগন

অজয় দেবগন অভিনীত পরবর্তী সিনেমা বাদশাহো। এরই মধ্যে প্রকাশ পেয়েছে সিনেমাটির ট্রেইলার ও গান। এতে অজয় ও ইলিয়েনা ডিক্রুজের অন্তরঙ্গ দৃশ্য দেখা যায়।

এদিকে কিছুদিন ধরেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, সেন্সর বোর্ডের ঝামেলা এড়াতে সিনেমার অজয়-ইলিয়েনার একটি অন্তরঙ্গ দৃশ্য ছেটে দিয়েছেন নির্মাতা। তবে বিষয়টি পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন পরিচালক মিলান লুথারিয়া এবং অজয়। এ প্রসঙ্গে অজয় বলেন, ‘আমি জানি না কোথা থেকে এই কথাগুলো আসে। আমরা অবশ্যই পর্নো সিনেমা নির্মাণ করিনি।’

মিলান লুথারিয়া বলেন, ‘এটা সম্পূর্ণ অনুমান করে বলা হয়েছে। আমার মনে হয় না, টিমের বাইরে কেউ জানে কী এবং কীভাবে আমরা সিনেমাটি সম্পদনা করছি। এটা একটি গুঞ্জন। এটি একটি সহজবোধ্য সিনেমা।’

সম্প্রতি মধুর ভান্ডারকর পরিচালিত ইন্দু সরকার সিনেমাটি নিয়ে সেন্সরবোর্ডের সঙ্গে বেশ ঝামেলা হয়। মিলান লুথারিয়ার সিনেমাটিও প্রায় একই রকম বিষয়বস্তু নিয়ে নির্মিত। এ বিষয়ে মিলান বলেন, ‘এখন পর্যন্ত কিছু হয়নি এবং আমার মনে হয় না ভবিষ্যতেও কিছু হবে। আমরা অতীতেও এ ধরনের সিনেমা দেখেছি। আর ওই (ইন্দু সরকার) সিনেমাটি রাজনৈতিক এবং আমাদেরটা অ্যাকশনধর্মী।’

অজয় দেবগন বলেন, ‘একজন পরিচালক-প্রযোজক হিসেবে আমি কোনো ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হয়নি। জানি না সমস্যাটা কী, আমি কোনো সমস্যা দেখি না। আপনি যদি বিচার বুদ্ধি সম্পন্ন কিছু করে থাকেন তাহলে সবকিছুই বোঝা যাবে।’

১৯৭৫ সালে ভারতে জরুরি অবস্থা জারি হয়েছিল। এ প্রেক্ষাপটে নির্মিত হয়েছে বাদশাহো। এক শহর থেকে অন্য শহরে ভারতের সংরক্ষিত স্বর্ণ নিয়ে যাওয়ার সময় তা চুরির চেষ্টা করে অজয় দেবগন, ইমরান হাশমি, ইলিয়েনা ডিক্রুজ, এশা গুপ্তা, বিদ্যুৎ জামাল ও সঞ্জয় মিশ্রা। এ জন্য তারা পান ৯৬ ঘণ্টা সময়। তাদের বাধা দেওয়ার জন্য রয়েছে এলিট সেনা সদস্য। শেষ পর্যন্ত তারা স্বর্ণ চুরি করতে পারবেন কিনা তা নিয়ে সিনেমার গল্প। টি-সিরিজের ব্যানারে সিনেমাটি প্রযোজনা করছেন গুলশান কুমার, ভূষণ কুমার, কৃষাণ কুমার। আগামী ১ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাবে সিনেমাটি।

You Might Also Like